এ সময় চাই চুলের একটু বাড়তি যত্ন।

প্রকৃতিতে এখন হেমন্তের ছোঁয়া। বাইরে বেড়ানোর জন্য চমৎকার। কিন্তু দিনের বেলায় চিড়বিড়ে রোদ আর রাতে হালকা হিমভরা আর্দ্রতাহীনতা চুলের জন্য মারাত্মক ক্ষতিকর হয়ে দাঁড়ায়। শুষ্ক স্কাল্প মানেই খুশকির ঝামেলা আর চুল পড়া। এখন চুল থাকার চেয়ে চুল পড়াটাই যেন স্বাভাবিক ব্যাপার হয়ে দাঁড়িয়েছে।  তাই এ সময় চাই চুলের একটু বাড়তি যত্ন। তা না হলে খুব অল্প সময়েই চুল হয়ে উঠবে শুষ্ক ও প্রাণহীন। রূপবিশেষজ্ঞ সামিয়া আফরোজ মুন্নী জানিয়েছেন_ সহজ কিছু পদ্ধতি যা এই হেমন্তের আবহাওয়াকে চুলের জন্য বৈরী না করে বরং চুলকে করবে আকর্ষণীয় ও ঝলমলে।

resize65330

পেঁয়াজের রস ও মধু
পেঁয়াজের রসে প্রচুর পরিমাণে সালফার থাকে যা আপনার চুল বৃদ্ধিতে সহায়তা করে। শুধু তাই নয়_ এটি মাথার ত্বকে রক্ত সঞ্চালনেও সাহায্য করে। মধু চুলে আর্দ্রতা জোগায়। চুল ফাটা রোধ করে পেঁয়াজের রস ও মধু একসঙ্গে মেখে পেস্ট করুন। তারপর গোসলের আগে ১৫ মিনিট চুলে রাখুন। তারপর হালকা ম্যাসাজ করে কন্ডিশনারযুক্ত শ্যাম্পু দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

banana1 পাকা কলা
পাকা কলা চুলের জন্য ভীষণ স্বাস্থ্যকর। এটি একদিকে চুলকে যেমন আর্দ্রতা জোগায় তেমনি চুলের রুক্ষতা ও আগা ফাটা ভাবও দূর করে। এর প্রোটিন চুলে ভঙ্গুর ভাব কমিয়ে চুলকে ঝলমলে করে। প্রথমে পাকা কলা চটকে এর সঙ্গে এক চামচ দুধ ও এচামচ মধু মিশিয়ে চুলে মাখুন। আধাঘণ্টা রেখে শ্যাম্পু করে ফেলুন।

2015_07_07_07_39_47_y02nzw4lavhyvk8yqpg9gs9upwkhf4_originalডিমের কুসুম
ডিমের কুসুমকে বলা হয় প্রাকৃতিক কন্ডিশনার। ফ্রিজি আর ড্যামেজড চুলের জন্য এটির চেয়ে ভালো প্রাকৃতিক কন্ডিশনার আরহয় না। দুই চা চামচ নারকেল তেল, দুই চা চামচ অলিভ অয়েল, একটি ডিমের কুসুম (চুল অনুযায়ী_ বেশি লম্বা চুল হলে দুটিকুসুম নেবেন) আর সামান্য মধু দিয়ে হেয়ার প্যাক তৈরি করুন। চুলে লাগিয়ে আধাঘণ্টা রেখে দিন। তারপর শ্যাম্পু করে ফেলুন। আজকাল বাজারে ভালো ভালো ব্র্যান্ডের এগ শ্যাম্পু পাওয়া যায়। চুলের বাড়তি যত্নের জন্য নিয়মিত এগ শ্যাম্পু ব্যবহার করতে পারেন।
nimpataনিম
নিম একটি অত্যন্ত কার্যকরী রূপচর্চা উপাদান। বহু বছর ধরে আয়ুর্বেদেও এর ব্যবহার লক্ষণীয়। এটি চুলের জন্যও উপকারী। নিমপাতা সিদ্ধ পানি ও মধুর একটি তরল তৈরি করে চুলে লাগান। এটি একটি ভালো কন্ডিশনার হিসেবেও কাজ করে। এ ছাড়া এটি খুশকি দূর করতেও ভীষণ কার্যকর।

photo-1449284510অ্যালোভেরা
অ্যালোভেরা জেল সরাসরি নিয়ে বা অ্যালোভেরা জুস বানিয়ে আপনি আপনার মাথার ত্বকে লাগিয়ে কিছুক্ষণ ম্যাসাজ করুন। এক থেকে দুই ঘণ্টা রেখে দিন পরে হালকা গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। অ্যালোভেরার প্রাকৃতিক ভেষজ উপাদান মাথার ত্বক সুস্থ রাখে এবং শুষ্ক মাথার ত্বক স্বাভাবিক করে যার ফলে চুল পড়া প্রায় অনেকটাই কমে আসে।

maxresdefaultআমলকী
কিছু শুকনা আমলকী নিয়ে নারিকেল তেলের মধ্যে দিয়ে জ্বাল দিতে থাকুন যতক্ষণ না তেল কালো হয়ে যায়। এবার এই তেল আপনার মাথার ত্বকে ম্যাসাজ করুন দেখবেন চুল পড়া বন্ধ হবে। আবার আপনি চাইলে আমলকী বেটে এর সঙ্গে শিকাকাই মিশিয়ে পেস্ট করে তা মাথায় লাগাতে পারেন, এটাও চুল পড়া কমাতে খুব কাজে দেয়। তবে যাদের চুল শুষ্ক তারা শিকাকাই ব্যবহার করবেন না।

1470727906গ্রিন টি
চুল পড়া রোধে আপনি নিশ্চিন্তে গ্রিনটি ব্যবহার করতে পারেন। দুটি গ্রিন টি ব্যাগ নিয়ে এক কাপ পানিতে ফুটিয়ে সেই পানি ঠাণ্ডা করে চুলে ঢালুন। এটি এক ঘণ্টা আপনার চুলে রেখে পরে ধুয়ে ফেলুন।

best-anti-dandruff-hair-oils-in-the-marketওভার নাইট অয়েলিং
মাসে এক থেকে দুবার নারকেল তেল, জলপাই তেল, তিসির তেল আর মেথির তেল চুলে ভালোভাবে মেখে সারারাত রেখে দিন। খুব ভালো হয় যদি বেড টাইম ক্যাপ পরে ঘুমান। আর যদি হাতে সময় না থাকে তাহলে গোসলের আধাঘণ্টা থেকে এক ঘণ্টা আগে তেলের মিশ্রণ দিয়ে ভালো করে ম্যাসাজ করুন। তারপর গরম পানিতে একটি মাঝারি সাইজে তোয়ালে ভিজিয়ে নিংড়ে নিন। খেয়াল রাখবেন তাপমাত্রা যেন সহনীয় পর্যায়ে থাকে। তারপর ১০ মিনিট এটি চুলে ভালো করে জড়িয়ে রাখুন। কন্ডিশনারযুক্ত শ্যাম্পু দিয়ে চুল ধুয়ে ফেলুন। এতে চুলের ভালো ময়শ্চারাইজিং হবে।

এছাড়াও…
চুল পরিষ্কার রাখাটাই প্রথম এবং শেষ কথা। অপরিষ্কার চুলে যতকিছুই করুন না কেন তাতে ফলাফল উল্টো হওয়ার সম্ভাবনা বেশি। তাই এ ব্যাপারে একটু যত্মবান হোন। মনে রাখবেন চুল সুন্দর তো আপনি সুন্দর। চুলের যত্নের পাশাপাশি নিজের যত্নের দিকেও মনোযোগী হউন। প্রচুর পানি পান করুন ও ভিটামিন সমৃদ্ধ রঙিন সবজি খান। এতে চুলের ভেতর থেকে লাবণ্য ফিরে আসবে। আরও একটি ছোট্ট টিপস আপনার চুলকে রুক্ষ ও ভঙ্গুর হওয়ার হাত থেকে বাঁচাবে_ তা হলো বাইরে বেরুনোর সময় চুল খোলা না রেখে আলতো করে খোঁপা কিংবা বেণি করে নিন। আজকাল থ্রিপিস, টপস কিংবা জিন্স_ ফতুয়ার মতো ট্রেন্ডি পোশাকের সঙ্গেও সাইড খোঁপা বেশ মানানসই।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here