ঐশ্বর্য এবার দাদাসাহেব ফালকে পুরস্কারে সম্মানিত!

মুম্বইয়ে এক অনুষ্ঠানে অভিনেত্রীর হাতে এই পুরস্কার তুলে দেন আর এক অভিনেত্রী হেমামালিনী।

বহুদিন আগেই পর্দায় তাঁকে ভারতীয় দর্শক অস্ফুটে বলে উঠেছিল ‘হাম দিল দে চুকে সনম’। তিনি পার্বতী হলেই তামাম সিনেপ্রেমী যে মনে দেবদাস হয়ে উঠবে, এ সত্যি মেনে নিয়েছে চলমান সিনে-ইতিহাস। সে ইতিহাসেই যোগ হল এক নয়া পাতা। ‘সরবজিৎ’ ছবির জন্য দাদাসাহেব ফালকে পুরস্কারে সম্মানিত হলেন ঐশ্বর্য রাই বচ্চন।

‘সরবজিৎ’ ছবির জন্য দাদাসাহেব ফালকে পুরস্কারে সম্মানিত হলেন ঐশ্বর্য রাই বচ্চন।
‘সরবজিৎ’ ছবির জন্য দাদাসাহেব ফালকে পুরস্কারে সম্মানিত হলেন ঐশ্বর্য রাই বচ্চন।

রুপোলি পর্দায় মায়া তো তিনি ছড়িয়েছেেই। এবার নয়া ‘জসবা’ দেখানোর পালা। কেরিয়ারের এক ইনিংস শেষ করে শুরু করেছেন নয়া অধ্যায়। আর সেখানেই বাজিমাত। কেরিয়ারের কামব্যাক পর্বেই দাদাসাহেব ফালকে সম্মানে ভূষিত হলেন ঐশ্বর্য রাই বচ্চন। নতুন পর্বে ইতিমধ্যেই বেশ কয়েকটি সিনেমা করেছেন। তবে ধারে-ভারে ‘সরবজিৎ’ সবার থেকে আলাদা। পাকিস্তানে বন্দি নির্দোষ ভারতীয় সরবজিতের কাহিনিই উঠে এসেছিল বড় পরদায়। তাঁর দিদি দলবীর কৌরের চরিত্রে দেখা গিয়েছিল ঐশ্বর্যকে। এ চরিত্র বাস্তব। দলবীরের লড়াইয়ের সাক্ষী থেকেছে ভারত-সহ গোটা দেশ। তাই সে চরিত্রকে পর্দায় তুলে ধরা নয়া চ্যালেঞ্জ ছিল ঐশ্বর্যর কাছে। উল্টোদিকে ছিলেন রণদীপ হুডার মতো তুখোড় অভিনেতা। দিনের শেষে বাজিমাত করেছিলেন দু’জনেই। সরবজিৎ হয়ে রণদীপ যেমন সকলের চোখে জল এনেছিলেন, দলবীর হয়ে ঐশ্বর্যও জুগিয়েছিলেন লড়াইয়ের বাড়তি প্রেরণা। সেই পারফরম্যান্সই এবার পেল স্বীকৃতি। মুম্বইয়ে এক অনুষ্ঠানে অভিনেত্রীর হাতে এই পুরস্কার তুলে দেন আর এক অভিনেত্রী হেমামালিনী।

সূত্রঃ সংবাদ প্রতিদিন

 

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here