কর্মক্ষমতা বাড়ে নীরবতায়!

নীরবতা শুধু সম্মতির লক্ষণ নয়; তা মন ও শরীরের শান্তিরও কারণ। চুপ থাকার উপকারিতার কথা বিজ্ঞানসম্মতও।

সাম্প্রতিক এক গবেষণায় উঠে এসেছে চুপ থাকলে কমে চিন্তা, বাড়ে কর্মক্ষমতা। প্রাচীন মুনি-ঋষিরাও হয়তো সেজন্যই ধ্যানের কথা বলে গেছেন।

গবেষণা প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, কথা অবশ্যই ভাব প্রকাশে সহায়তা করে। তবে কিছু কথা নিজের মনের সঙ্গেও বলা ভালো। এতে নাকি মস্তিষ্ক ভীষণভাবে উপকৃত হয়।

কী সেই উপকারিতা? বছরের পর বছরের গবেষণায় জানা গেছে সেই সব তথ্য—

* প্রতিদিন দুই মিনিটের নীরবতা গান শোনার চেয়েও বেশি স্বস্তি দেয় মানুষের মস্তিষ্ককে।

* নিস্তব্ধতা মানব শরীরে জ্ঞানের বিকাশে সাহায্য করে। এর ফলে ভাষায় দক্ষতা বাড়ে।

o-silent-meditation-facebook

* সমস্ত আবেগগুলোকে মগজে একত্রিত করে বিচার-বিশ্লেষণ করা যায়। এতে ঠিক-বেঠিকের সঠিক সিদ্ধান্ত নেওয়া যায়।

* শান্ত ব্যক্তিরা প্রতিকূল পরিস্থিতি বেশি ভালোভাবে সামাল দিতে পারেন।

* নীরবতা মগজের নতুন কোষের বৃদ্ধিতেও সাহায্য করে।

সূত্র: সংবাদ প্রতিদিন

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here