খুলনা-কলকাতা দ্বিতীয় মৈত্রী ট্রেন ৮ এপ্রিল উদ্বোধন  

৭ থেকে ১০ এপ্রিল প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভারত সফরে ৮ এপ্রিল দ্বিতীয় মৈত্রী এক্সপ্রেস ট্রেনের উদ্বোধন করবেন দু’দেশের প্রধানমন্ত্রী।

দীর্ঘ প্রতীক্ষার পর ৮ এপ্রিল খুলনা-কলকাতা রুটে দ্বিতীয় মৈত্রী এক্সপ্রেস ট্রেনের উদ্বোধন করা হবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভারত সফরে রেলওয়ের উন্নয়নে আরও দুটি প্রকল্পের সমঝোতা স্বাক্ষর হবে। এর আগে ২০০৮ সালের ১৪ এপ্রিল ঢাকা-কলকাতা রুটে প্রথমবারের মতো মৈত্রী এক্সপ্রেস ট্রেন চলাচল শুরু হয়।

রেলপথ সচিব মো. ফিরোজ সালাহ উদ্দিন জানান, বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে সৌহার্দ্য ও ভ্রাতৃত্ববোধ উন্নয়নে রেলওয়েতে ব্যাপক কাজ করা হচ্ছে। রেলওয়ের উন্নয়নে ভারত সহযোগিতা করছে। ৭ থেকে ১০ এপ্রিল প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভারত সফরে ৮ এপ্রিল দ্বিতীয় মৈত্রী এক্সপ্রেস ট্রেনের উদ্বোধন করবেন দু’দেশের প্রধানমন্ত্রী। একই সঙ্গে রাধিকাপুর-বিরল সেকশনে নতুন রেলপথের উদ্বোধন করা হবে। এছাড়া কন্টেইনার কর্পোরেশন অব ইন্ডিয়া-কোঙ্কন রেলওয়ে কর্পোরেশন এবং কন্টেইনার কোম্পানি অব বাংলাদেশের মধ্যে সমঝোতা স্বাক্ষর হবে।

ভারতীয় রেলওয়ে উপদেষ্টা ও ফার্স্ট সেক্রেটারি দিব্বাজন রায় জানান, ভারত-বাংলাদেশের মধ্যে ভ্রাতৃত্ববোধ উন্নয়ন ও যাত্রী সেবা বাড়াতে দ্বিতীয় মৈত্রী এক্সপ্রেস ট্রেন চালু হচ্ছে। ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দিল্লি থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে দ্বিতীয় মৈত্রী এক্সপ্রেস ট্রেন ও রাধিকাপুর-বিরল রেলপথের উদ্বোধন করবেন।

দ্বিতীয় মৈত্রী এক্সপ্রেস ট্রেন
দ্বিতীয় মৈত্রী এক্সপ্রেস ট্রেন

রেলপথ মন্ত্রণালয় ও ভারতীয় হাইকমিশনার সূত্রে জানা যায়, দ্বিতীয় মৈত্রী এক্সপ্রেস ট্রেন চালুর মধ্য দিয়ে বাংলাদেশ-ভারতের মধ্যে রেল যোগাযোগ বৃদ্ধিসহ আন্তর্জাতিক ট্রান্স-এশিয়ান রেলরুটে অন্তর্ভুক্ত হবে বাংলাদেশ। এতে রেলপথে পণ্য রফতানি-আমদানির সুবিধাসহ যাত্রীবাহী ট্রেন চলাচল বৃদ্ধি পাবে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক রেলওয়ের এক কর্মকর্তা জানান, বাংলাদেশ রেলওয়েতে যাত্রীবাহী বগি ও ইঞ্জিন স্বল্পতা থাকায় শুরুতে দ্বিতীয় মৈত্রী এক্সপ্রেস ট্রেনটি ভারতীয় ইঞ্জিন ও রেক দিয়ে চলাচল করবে। ট্রেনটি উদ্বোধন হলে খুলনা-কলকাতা ১৫০ কিলোমিটার রেলপথ মাত্র ৩ ঘণ্টায় চলাচল সম্ভব হবে। এটি খুলনা-যশোর-বেনাপোল-পেট্রাপোল-বনগাঁও জেলার উত্তর চব্বিশ পরগনা হয়ে কলকাতা স্টেশনে পৌঁছবে।

রেলপথ মন্ত্রী মো. মুজিবুল হক সাংবাদিকদের জানান, উদ্বোধনের পর থেকে দ্বিতীয় মৈত্রী এক্সপ্রেস ট্রেনটি সপ্তাহে ১ দিন চলাচল করবে। পরে ট্রিপ বাড়ানো হবে। এছাড়া আগামী ১ বৈশাখ থেকে ঢাকা-কলকাতা রুটে চলমান মৈত্রী এক্সপ্রেস ট্রেনটি সম্পূর্ণ শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত অবস্থায় চলবে। তিনি বলেন, রেলপথে যাত্রী সেবা বাড়ানো ও সল্প সময়ের মধ্যে চলাচলে বুলেট ট্রেন, বৈদ্যুতিক ট্রেনসহ বিশ্বমানের আধুনিক ট্রেন চালানোর পরিকল্পনা নেয়া হচ্ছে।

সূত্রঃ যুগান্তর

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here