গরম থাকতে থাকতে মেদ ঝেড়ে ফেলুন

গরম থাকতে থাকতে মেদ ঝেড়ে ফেলুন
সাঁতার ক্লাবে ভর্তি হউন। সাঁতারের মাধ্যমে অনেক মেদ ঝরে যাবে।

সুমনা মাহি   

যারা শরীরের অতিরিক্ত মেদ ফেলে দিতে চান, গরম তাদের জন্য আর্শিবাদের মত। বলা হয়, মেদ কমানো বা রোগা হওয়ার উকৃষ্ট সময় গ্রীষ্মকাল। কারণ শীতের দিনে খাবারের প্রতি যে পরিমাণ আগ্রহ থাকে, গরমে তা অর্ধেকের কমে এসে ঠেকে। পাশাপাশি তেল ও মশলাজাতীয় খাবারের ওপর থেকেও রুচি উঠে যায়। তারপরও ভুল করে কখনো এসব খেয়ে ফেললেও শরীর সেটা সহ্য করতে পারে না। তাই গরমের সময়ে আমরা সাধারণত হালকা খাবার খেয়েই তৃপ্তি পাই। সেই সঙ্গে ভরপেট খেতেও ভয় পাই। গরমে যেহেতু খাদ্যাভ্যাসের ওপর একটা নিয়ন্ত্রণ চলে আসে, তাই মেদ ঝরানোর মোক্ষম সময় হতে পারে গ্রীষ্ম ঋতু। বিশেষজ্ঞরাও এমনই বলেন।

ইচ্ছাশক্তির পাশাপাশি কিছু পরামর্শও মেনে চলুন। আপনার চেষ্টাটা আরও সহজ হবে। খুব দ্রুতই শরীরের বাড়তি মেদ ঝরিয়ে ফেলতে পারবেন।

১) গরমের সময় বেশি বেশি ফল খান। এটি খেলে ডায়েটের সঙ্গে সঙ্গে শুরীরও ভালো থাকবে। কালো জাম, জামরুল, তরমুজ, আনারস, আঙুর, আপেল, পেয়ারা, আম, লিচু ও তাল প্রচুর পরিণানে খেতে পারেন। মেদ নিয়ন্ত্রণে আসবে।

২) গরমে শরীর থেকে অতিরিক্ত পরিমাণ ঘাম বের হয়। তাই দিনে কম করে হলেও চার লিটার পানি পান করুন। পান করার আগে পানিতে তুলসী অথবা পুদিনা পাতা ফেলে রাখুন। লেবুর স্লাইসও মেশাতে পারেন। শরীরে শক্তি আসবে।

৩) ঘরে তৈরি ফলের শরবত পান করুন। ক্যালরি বার্ন করতে কাজে লাগবে। ডাবের পানি পান করুন। এছাড়া দইয়ের ঘোল খান, এটি মেদ কমাতে সাহায্য করে।

৪) গ্রীষ্মের উত্তপ্ত দিনে পাহাড়ে কিংবা সমুদ্রে বেড়াতে যান। যতেচ্ছা ঘোরাঘুরি আর সমুদ্রের জলে সাঁতারের মাধ্যমে অনেক মেদ ঝরে যাবে। তাই সুযোগ করে বেরিয়ে পড়ুন।

৫) নিয়মিত ব্যায়াম করুন। এ সময় অল্প শারিরীক শরিশ্রমে বেশি ফল পাবেন। সাঁতার ক্লাবে ভর্তি হউন। জিমে যাতায়াত শুরু করতে পারেন। লেখাধূলাও করুন।

মেদবহুল শরীর কোনো ধরনের পোশাকেই জুতসই দেখায় না, গরমের পোশাক তো একেবারেই নয়। তাই রোগা হওয়ার মোক্ষম সময়টিকে হাতছাড়া না করে কাজে লাগান। সৌন্দর্য ফিরিয়ে আনুন। নিজের কাছেই ভালো লাগবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here