চুল ভালো থাকুক রিঠা আর শিকাকাই এর গুণে

জেসমিন আখতার

একদম প্রাকৃতিক উপায়ে খুবই কম খরচে আপনি নিজেই সম্পূর্ণ নিরাপদ শ্যাম্পু তৈরি করতে পারবেন। যা চুল পড়া বন্ধ করার পাশাপাশি চুলকে দেবে এমন উজ্জ্বলতা যাতে কন্ডিশনার ব্যবহারের প্রয়োজনও আর পড়বে না ।
প্রাকৃতিক শ্যাম্পু হিসেবে আপনি ব্যবহার করতে পারেন রিঠা ও শিকাকাই।এগুলো মূলত প্রাকৃতিক উপাদান যা ব্যবহারে আপনার চুল হবে মজবুত ও স্বাস্থ্যজ্জল।

চলুন জেনে নেয়া যাক এগুলো কি আর ব্যবহার এর প্রক্রিয়া।

শিকাকাইঃ
শুকনো তেঁতুলের মত দেখতে শিকাকাই। আমাদের উপমহাদেশে কেশ চর্চায় প্রাচীন কাল থেকে প্রচলিত। এর ফল আর বাঁকল থেকে শ্যাম্পু তৈরি করা হয়। এতে ফেনা হয় কম যা সালফেট শ্যাম্পু থেকে কম হলেও চুল পরিষ্কারে সাধারণ শ্যাম্পু থেকে অনেক বেশি কার্যকর। পাশাপাশি এটা ন্যাচারাল কন্ডিশনারের কাজও করে।

 

রিঠাঃ
এটি গোল শুকনো বরইয়ের মত দেখতে। চুল পরিষ্কারে এর জুরি মেলা ভার।এখনো গ্রামে এটা দিয়ে কাথা, লেপ পর্যন্ত ধুয়ে ফেলা হয়। এতে প্রচুর ফেনা হয়। চুলের খুশকি, মাথার একজিমা আর উকুন দুর করতেও এর ব্যবহার করা হয়।

এবার দেখি এই রিঠা আর শিকাকাই দিয়ে কীভাবে শ্যাম্পু বানানো যায়।

প্রণালীঃ

১. প্রথমে রিঠার বীজ বের করে নিয়ে শিকাকাই সহ কয়েক ঘণ্টা পানিতে ভিজান। এতে এগুল নরম হবে। (এই পদ্ধতিতে এক সপ্তাহ ধরে ব্যবহার করার মত শ্যাম্পু তৈরি হবে, তাই সময় একটু বেশি লাগলেও অসুবিধা নেই।)

২. এবার একটা কড়াইতে এগুলো ডুবিয়ে পানি ঢালুন। (রিঠা, শিকাকাই ভেজান পানি সহ) আর ১৫-২০ মিনিট চুলায় অল্প আঁচে সিদ্ধ করুন।

৩. ফেনা দেখা গেলে চুলা থেকে নামিয়ে নিন। এবার ঠাণ্ডা করে শ্যাম্পু হিসেবে ব্যবহার করুন। ছেঁকে নিয়ে শুধু পানিটা ব্যবহার করতে পারেন আবার সব ফল একসাথে নিয়েও ব্যবহার করতে পারেন। এই পানিটা মগে পরিমাণ মত নিয়ে হাত দিয়ে জোরে নাড়া দিলেই দেখতে পাবেন কতটা ফেনা পাওয়া যায়।

এই মিশ্রণটি এক সপ্তাহ ফ্রিজে রাখতে পারবেন।

কীভাবে ব্যবহার করবেন?

পানি দিয়ে চুল ধুয়ে নিন
এবার তৈরি করা শ্যাম্পুর লিকুইড দিয়ে নরমাল শ্যাম্পুর মত চুল ধুয়ে নিন। প্রথম বার বেশিক্ষণ চুলে ফেনা থাকবে না। তবে ফেনার আশায় বেশি লিকুইড নেয়ার দরকার নেই, এতে অতিরিক্ত রিঠা চুল শুষ্ক করে ফেলতে পারে। চুল এমনিতেই পরিষ্কার হবে। তিন চার মিনিট ভালো ভাবে মাথা ম্যাসেজ করে ধুয়ে ফেলুন।
মাথায় যদি তেল দেয়া হয় তবে পুরো প্রক্রিয়া টি তেল কেটে না যাওয়া পর্যন্ত করুন।

উপকারিতাঃ
.
সম্পূর্ণ কেমিক্যাল বিহীন।
.চুল পড়া বন্ধ করে আর নতুন চুল গজাতে সাহায্য করে।
.খুবই কম খরচে তৈরি করা যায়। রেগুলার ব্যবহার করলে নরমাল শ্যাম্পু কন্ডিশনারের খরচ পুরটাই বেঁচে যাবে।
.চুলের ফ্রিজি ভাব কমায়
.চুলের গোঁড়া শক্ত করে।
.খুশকি আর উকুন দুর করে।
.চুল আস্তে আস্তে স্ত্রেইট করে ফেলে।
.শিকাকাই চুল সিল্কি, মসৃণ করে। সিলিকন যুক্ত কন্ডিশনারের কোন দরকারই হবেনা আর আপনার।

এই প্রক্রিয়া আপনার চুল পড়া,চুলের ফ্রিজি ভাব কমিয়ে এনে চুল কে করবে মসৃণ,সুন্দর আর স্বাস্থ্যজ্জল।তাই দেরি না করে বদলে ফেলুন শ্যাম্পু করার প্রক্রিয়া।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here