জানেন, কেন অন্তর্বাস সবসময় আলাদা কাচা উচিত?

অ্যারিজোনা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপকরা এ নিয়ে রীতিমতো গবেষণা করেছেন। তাঁরা জানাচ্ছেন, অন্তত ১০ কোটি জীবাণু এভাবে ছড়িয়ে পড়তে পারে।

রান্নাঘরে বাসন মোছার কাপড় কি সাধারণ জামাকাপড়ের সঙ্গে কেউ ধুয়ে থাকেন? কিংবা অন্তর্বাসের সঙ্গে কি তা কাচা হয়? সকলেই একবাক্যে বলবেন, কক্ষণও না। কিন্তু সাধারণ জামাকাপড় ও অন্তর্বাস প্রায়শই একসঙ্গে কাচা হয়। কিন্তু এই রেওয়াজ কতটা ঠিকঠাক? সাধারণভাবে বিষয়টিকে গুরুত্ব না দেওয়া হয় না। অথছ অসুখ-বিসুখ, বিশেষত সংক্রমণ ছড়ানোর সিংহভাগ দায়িত্ব পালন করে এটিই। বিশেষজ্ঞরা জানাচ্ছেন, যে কোনও ধরনের অন্তর্বাস সবসময় আলাদা কাচা উচিত। সাধারণ জামাকাপড়ের সঙ্গে তা মেশানো উচিত নয়। কিন্তু কেন এই সতর্কবার্তা?

বিশেষজ্ঞরা জানাচ্ছেন, সারাদিন শরীর থেকে যে পরিমাণ বর্জ্য নির্গত হয়, তার এক দশমাংশ থেকে যায় অন্তর্বাসেই। কাজেই সাধারণ কাপড়ের সঙ্গে অন্তর্বাস মিশিয়ে ফেলা মানেই এই জীবাণু ছড়িয়ে পড়া। অ্যারিজোনা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপকরা এ নিয়ে রীতিমতো গবেষণা করেছেন। তাঁরা জানাচ্ছেন, অন্তত ১০ কোটি জীবাণু এভাবে ছড়িয়ে পড়তে পারে।ওয়াশিং মেশিনে একটা নির্দিষ্ট উষ্ণতার জল ব্যবহার করা হয়। যাতে সব ধরনের জামাকাপড়ের কোনও ক্ষতি না হয়। কিন্তু জীবাণুদের মৃত্যুর জন্য বেশি উষ্ণতার জল প্রয়োজন। ফলত একসঙ্গে জামাকাপড় কাচলে অন্তর্বাসের জীবাণু তো মরেই না। উপরন্তু সাধারণ জামাকাপড়ে যে জীবাণু ছড়ায়, তাও থেকে যায়।

অন্তর্বাস কাচার জন্য সঠিক ডিটারজেন্টও প্রয়োজন।
অন্তর্বাস কাচার জন্য সঠিক ডিটারজেন্টও প্রয়োজন।

এছাড়া ডিটারজেন্টের উপরও অনেক কিছু নির্ভর করে। কোনও কোনও ডিটারজেন্ট দাগ তোলার জন্য গুরুত্বপূর্ণ। কিন্তু তাতে জীবাণুনাশ সঠিকভাবে হয় না। আর তাই অন্তর্বাস কাচার জন্য সঠিক ডিটারজেন্টও প্রয়োজন।

ছোটরা ও বয়স্কদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কম হয়। তাই জীবাণু যদি ছড়িয়ে পড়ে তবে সংক্রমণের সম্ভাবনা বাড়ে। তাই সাধারণ জামাকাপড়ের সঙ্গে অন্তর্বাস কখনওই একসঙ্গে কাচা উচিত নয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here