জয়া আহসানের দিনকাল

এটা দারুণ এক অভিজ্ঞতা। ২৪ ঘণ্টা মহাপুজো প্রতিযোগিতার বিচারক হতে পেরে আমি আনন্দিত। একদিনেই ১০টি দুর্গাকে দেখেছি।

ঢাকাই চলচ্চিত্রের জনপ্রিয় অভিনেত্রী জয়া আহসান। চলচ্চিত্রে পা রেখেই নিজের জায়গা করে নিয়েছেন এই অভিনেত্রী। তাই দুই বাংলাতেই রয়েছে তার জনপ্রিয়তা। এ পর্যন্ত বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন তিনি। অন্তরঙ্গ দৃশ্যে অভিনয় করেও তুমুল আলোচিত হয়েছেন জয়া। বর্তমানে তিনি কলকাতায় অবস্থান করছেন। সম্প্রতি শারদীয় দুর্গাপূজা উপলক্ষে কলকাতার ২৪ ঘণ্টা চ্যানেলের পক্ষে একদিনেই ১০টি দুর্গা ঘুরে দেখলেন বাংলাদেশের অভিনেত্রী জয়া। ২৪ ঘণ্টা মহাপূজো প্রতিযোগিতার বিচারক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন তিনি। দুর্গা দর্শনের সময় জয়া ঢাকার একটি খ্যাতনামা বুটিক হাউজ থেকে উপহার পাওয়া শাড়ি পরেন।
পূজা প্রসঙ্গে জয়া বলেছন, ‘এটা দারুণ এক অভিজ্ঞতা। ২৪ ঘণ্টা মহাপুজো প্রতিযোগিতার বিচারক হতে পেরে আমি আনিন্দিত। একদিনেই ১০টি দুর্গাকে দেখেছি।’
তিনি আরও জানান, সেরা বারোয়ারির শিরোপা পেয়েছে নিউ আলিপুর সুরুচি সংঘ। এই পূজায় তুলে ধরা হয়েছে ভুটান। প্রতিবেশী দেশের সংস্কৃতি, স্থাপত্য, কৃষ্টিই তাদের আকর্ষণ। রানারআপ হয়েছে সেলিমপুর পল্লী দুর্গোৎসব। সেরা প্রতিমার পুরস্কার পেয়েছে নাকতলা উদয়ন সংঘ। অন্তঃস্বার ভাবনার সঙ্গে সংগতি রেখে গড়া হয়েছে প্রতিমা। সেরা সৃজনের পুরস্কার পেয়েছে বেহালা বুড়ো শিবতলা জনকল্যাণ সংঘ। এ ছাড়া দেবী সালঙ্কারা বিভাগে দমদম ভারতচক্র এবং ছোট পুজোর সেরা পুজোতে সেরা ৯৫ পল্লী যোধপুর পার্ক।

jyএদিকে, জয়া এখন ‘বির্সজন’ ছবির প্রস্তুতি নিচ্ছেন। টালিগঞ্জের এ সময়ের প্রখ্যাত নির্মাতাদের মধ্যে অন্যতম কৌশিক গঙ্গোপাধ্যায় ছবিটি পরিচালনা করবেন। এ ছবিতে জয়া পদ্মা চরিত্রে রূপদান করতে যাচ্ছেন। বৃহস্পতিবার বিকালে কলকাতায় এক সংবাদ সম্মেলনে এ ছবি বানানোর ঘোষণা দেয়া হয়। এখানে জয়া বলেন, কৌশিকদার পরিচালনায় কাজ করার তার বহুদিনের ইচ্ছা। এর আগে ‘আবর্ত’তে তার সঙ্গে অভিনয় করেছেন। এবার তিনি আমাকে পরিচালনা করবেন। তাই তিনি বেশ উচ্ছ্বসিত।
এ ছবির গল্প প্রেমনির্ভর হলেও প্রেক্ষাপট এক সময়ের পূর্ব পাকিস্তান (বর্তমানে বাংলাদেশ)। তৎকালীন সীমান্তবর্তী এলাকা ও চেকপোস্টকে এতে প্রাধান্য দেয়া হবে। ছবিটিতে জয়ার বিপরীতে অভিনয় করবেন আবীর চট্টোপাধ্যায়। পরিচালক কৌশিককেও দেখা যাবে গুরুত্বপূর্ণ একটি চরিত্রে।
নায়ক-নায়িকাকে রূপসজ্জার দায়িত্ব পালন করবেন ‘নির্বাসিত’র পরিচালক চূর্ণী গঙ্গোপাধ্যায়। সাংবাদিকদের জয়া জানিয়েছেন, ছবিটির জন্য বাংলাদেশ থেকে অনেক প্রপস প্রয়োজন। যেমন- সিগারেটের বাক্স, সাবান, দিয়াশলাই ইত্যাদি। এগুলোর বেশকিছু জিনিস তিনি নিজেও নিয়ে গেছেন।
জয়ার পদ্মা চরিত্রটির ব্যাপারে আত্মবিশ্বাসের সঙ্গে কৌশিক বলেন, ‘পদ্মা সব অর্থেই এখানে ইছামতীতে এসে মিশেছে। বড়াই করছি না, এমন চরিত্র দুই বাংলার কোনো পরিচালক তাকে (জয়া) এখনো অবধি দেয়নি।’ গল্প প্রসঙ্গে কৌশিক জানান, অনেকদিন ধরেই মাথায় প্রেমের গল্পটা ঘুরছিল। আজকের পরিস্থিতিতে তো এটা আরও বেশি প্রাসঙ্গিক। তিনি মনে করেন, পৃথিবীতে কাঁটাতার দিয়ে মানুষে মানুষে দূরত্ব তৈরি করা যায়। কিন্তু এর পাশাপাশি প্রেম দিয়ে যে সেই দূরত্ব মেটানো যায়, সেটাই এ ছবির ভাবনা।
আগামী ১৯ অক্টোবর থেকে সীমান্ত এলাকা টাকিতে ছবিটির দৃশ্যধারণ শুরু হওয়ার কথা। তার আগে শারদীয় দুর্গাপূজার দশমীর দিন ইছামতী নদীতে ‘বিসর্জন’-এর কিছু দৃশ্যের চিত্রায়ন হবে। ছবিটির জন্য গান বানাবেন দোহার ব্যান্ডের কালিকাপ্রসাদ ভট্টাচার্য। প্রযোজনা করছে ওপেরা মিউজিক অ্যান্ড এন্টারটেনমেন্ট।
এর আগে জয়া কলকাতায় অরিন্দম শীলের ‘আবর্ত’ (২০১৩), সৃজিত মুখার্জির ‘রাজকাহিনী’ (২০১৫), ইন্দ্রনীল রায় চৌধুরীর ‘একটি বাঙালি ভূতের গপ্পো’ (২০১৫) ও ‘ঈগলের চোখ’ (২০১৬) ছবিতে অভিনয় করেন।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here