ঢাকায় ‘লন্ডন ১৯৭১’ শীর্ষক আলোকচিত্র-প্রদর্শনী

0
523
লন্ডন ১৯৭১
লন্ডন ১৯৭১

‘লন্ডন ১৯৭১ : ভিনদেশে বাঙালির আগুনঝরা দিনের গল্প’ শিরোনামে একটা আলোকচিত্র-প্রদর্শনীর আয়োজন হয়েছে রাজধানী ঢাকায়। তিনদিনব্যাপী অনুষ্ঠিতব্য প্রদর্শনীর উদ্বোধনী হবে আগামীকাল বৃহস্পতিবার। ঢাকায় শিল্পকলা অ্যাকাডেমি বিল্ডিঙের জাতীয় চিত্রশালা পাঁচ-নম্বর গ্যালারিতে এই বিরলদৃশ্য ফোটোগ্রাফমালার সমাহারে প্রদর্শনী চলবে ১৮ থেকে ২০ তারিখ পর্যন্ত। এই প্রদর্শনী আয়োজনের উদ্যোগ এবং সমুদয় আর্থিক ও প্রাযুক্তিক ব্যবস্থাপনায় ‘প্রোজেক্ট লন্ডন ১৯৭১’ দায়িত্ব পালন করছে। এর অনুষ্ঠানমালায় আলোকচিত্রপ্রদর্শন ছাড়াও রয়েছে আমন্ত্রিত গুণীজনদের আলোচনা, বিলেতে সেই-কালপর্বে বাংলাদেশের অভ্যুদয়কেন্দ্রী লড়াইয়ের সঙ্গে তৎপর ব্যক্তিবর্গের স্মৃতিচারণা, রয়েছে অনুষ্ঠানে অভ্যাগত দর্শক ও অতিথিদের অভিজ্ঞতা বিনিময়ের ব্যবস্থা।
আলোকচিত্রালেখ্য প্রদর্শনী আয়োজনের সমন্বয়কারী ও উদ্যোক্তা উজ্জ্বল দাশ বলেন, মুক্তিযুদ্ধের বহু অজানা ইতিহাসের সাক্ষী লন্ডন। স্বাধীনতা সংগ্রামের প্রাক-প্রস্তুতিপর্ব থেকেই বিলেতপ্রবাসী মুক্তিকামী বাঙালিরা সরব ছিলেন। মুক্তিযুদ্ধকালীন দীর্ঘ নয়মাস বিলেতের প্রতিটি শহরে তাঁরা জোরালো দাবি তুলেছেন স্বাধীন বাংলাদেশের সমর্থনে। দূর পরবাসে থেকেও বহু মুক্তিকামী মানুষ আমাদের স্বাধীনতার পক্ষে কাঁপিয়েছিলেন বিলেতের রাজপথ। শুধু বাঙালিই নন, তখনকার ব্রিটেনে বসবাসরত বহু জাতির মুক্তিকামী ও মানবতাবাদী মানুষ সমস্বরে সমর্থন জানিয়েছিলেন, সোচ্চার হয়েছিলেন, অভ্যুদয়কামী একটি জনগোষ্ঠীর পক্ষে। সেই ইতিহাসের অনেকটাই আজও উদ্ঘাটনের অপেক্ষায়। ‘প্রোজেক্ট লন্ডন ১৯৭১’ অবগুণ্ঠনের অন্তরাল থেকে সেই কীর্তিগরিমার পরিচ্ছেদগুলো ক্রমশ তুলে ধরতে সচেষ্ট। প্রচেষ্টার প্রথম নিবেদন হিশেবেই তিনদিনব্যাপী এই আলোকচিত্রপ্রদর্শনী। ভিনদেশে আগুনঝরা দিনের অনন্য দলিল সেইসব আলোকচিত্রমালা।

লন্ডন ১৯৭১
ঢাকায় লন্ডন ১৯৭১ শীর্ষক আলোকচিত্র-প্রদর্শনী

প্রতিদিনের প্রদর্শনী বেলা ৩টায় শুরু হয়ে চলবে রাত ৮টা পর্যন্ত। আগামীকাল বিকেল ৪.৩০টায় প্রদর্শনীর উদ্বোধনীতে থাকবেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত, সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর, পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলমসহ অনেকে। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিষয়নির্দিষ্ট মুখ্য আলোচক থাকবেন ১৯৭১ সালে লন্ডনে স্থাপিত বাংলাদেশ কূটনৈতিক মিশনের দ্বিতীয় সচিব হিশেবে ভূমিকা পালনকারী সাবেক পররাষ্ট্রসচিব মহিউদ্দিন আহমদ, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী অধ্যাপক শহীদ সন্তান ডা. নুজহাত চৌধুরী।
প্রদর্শনীতে যে-সমস্ত ছবি প্রদর্শনকামরায় যাচ্ছে, সেগুলো প্রথমবারের মতো প্রদর্শিত হচ্ছে। এর আগে এই ছবিগুলো কোথাও প্রদর্শিত তো হয়ইনি, কেউ খোঁজও জানত না আলোকচিত্রগুলোর অস্তিত্ব বিষয়ে। এছাড়া আলোকচিত্রগুলো সমস্তই ব্রিটেনের লন্ডন শহরের অনুষঙ্গবহ। এইটা প্রদর্শনীর দ্বিতীয় ও গুরুত্বপূর্ণ একটি বিশেষত্ব। সর্বজনজ্ঞাত ইতিহাস হিশেবে এতদিন শুধু লন্ডনের কিছু জনসমাবেশ আর প্রতিবাদ-বিক্ষোভের ছবিই দেখে এসেছি আমরা; এই প্রদর্শনীতে সেসবের বাইরেকার প্রচুর নথি ও দালিলিক প্রমাণের আলোকচিত্রসম্ভার জায়গা পাচ্ছে। এগুলোর সংগ্রহসূত্র ও সংক্ষিপ্ত ইতিহাসভাষ্যও ছবির পাশাপাশি লিপিচিত্রিত থাকছে। প্রদর্শনী সকলের জন্য উন্মুক্ত। প্রদর্শনীর সহযোগিতায় রয়েছে সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রনালায়, বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমী, ওপেন ডিজিটাল কমিউনিকেশন লিমিটেড, জিডিজি বাংলা, বাংলাদেশ ওল্ড ফটো আর্কাইভ, মেজিক কিডস, মুক্ত আসর, ব্রিকলেনসহ অনেকে।
আয়োজনের বিস্তারিত: www.facebook.com/events/278022645897470

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here