নখ আকর্ষণীয় করার নানা পদ্ধতি

নখ আকর্ষণীয় করার নানা পদ্ধতি
নখের নানা রকম নেল ট্রিটমেন্ট আছে। এগুলোর নিয়মিত চর্চায় নখ সুন্দর থাকবে। আকর্ষণীয় হবে।

আর্টস্টাইল কিউরেটর মেরী খান  

সৌন্দর্য শুধু রূপে নয়, নখেও। তাই নখের যত্ন নেয়া আবশ্যক। রূপচর্চার পাশাপাশি নখের গঠন ও বৃদ্ধির প্রতিও যত্নশীল হউন। নখের নানা রকম নেল ট্রিটমেন্ট আছে। এগুলোর নিয়মিত চর্চায় নখ সুন্দর থাকবে। আকর্ষণীয় হবে।

বিভিন্ন নামী-দামী কোম্পানির নেল পলিশের বিস্তৃত সম্ভারের খোঁজ-খবর আমরা রাখি। ব্যস, ওই পর্যন্তই। শুধুমাত্র সময় সময় নেল পলিশ বদলানো অথবা মাসে মাসে ম্যানিকিওর করার বাইরেও হরেক রকমের প্রফেশনাল নেল ট্রিটমেন্ট রয়েছে। যা নখের স্বাস্থ্য ভালো রাখবে, পাশাপাশি নখকে আকর্ষণীয় করবে। যাঁদের নখ অত আকর্ষক নয়, তাঁদের অনেকেই এক সময় বিভিন্ন অনুষ্ঠানে নকল নখ ব্যবহার করতেন। বৈচিত্রই বলুন আর অল্টারনেটিভ অপশন বলুন, একটা সময় এর থেকে বেশি কিছু ছিল না। যুগ বদলেছে। নখের আবেদন বাড়ানোর জন্যে নানা রকম টেকনলজির ব্যবহার শুরু হয়েছে। এখন নানা রকম নেল এনহ্যান্সমেন্ট ট্রিটমেন্ট এবং আর্টিফিশিয়াল নখও পাওয়া যায়। নিচে পাঁচ ধরনের নেল ট্রিটমেন্টের বিস্তারিত রইল। 

অ্যাক্রিলিক নেলস
সাধারণত পলিমার এবং মোনোমার মিশ্রণ ন্যাচারল নখের ওপর লাগিয়ে অ্যাক্রিলিক নখ বানানো হয়। অ্যাক্রিলিক ব্রাশের সাহায্যে এটা লগানো হয়। মাত্র কয়েক মিনিটের মধ্যেই নখের ওপরের এই মিশ্রণ শক্ত হয়ে যায়। এরপর পছন্দ মত যে কোনো নেল কলার লাগানো যায়। অ্যাক্রিলিক নেলস বেশ দীর্ঘস্থায়ী, সহজে ব্যবহার করা যায়। ঠিকঠাক বসলে একেবারে ন্যাচারাল নখের মতই দেখায়।

জেল নেলস
আলট্রা ভায়োলেট জেল দিয়ে নখের ট্রিটমেন্ট (আগে থেকেই নখে পলিমার এবং মোনোমার মিশ্রণ লাগিয়ে রাখতে হবে)। এতে নখ আর্টিফিসিয়াল দেখায় না। বরং নখের উজ্জ্বলতা বাড়ে। এই জেল নখে মেখে তার ওপর অলট্রা ভায়োলেট লাইট ফেলে নখে জেল বসানো হয়। এই জেল লাগানোর আগে নখ কিছুক্ষণ ভিজিয়ে রাখতে হয়। যাদের নখ ভাঙা, তারা এ ট্রিটমেন্ট করাতে পারেন। জেল দিয়ে বানানো নখ বেশ নরম হয়। এটা নখের ওপর থেকে সরেও না।

শেল্যাক নেল পলিশ
শেল্যাক এক ধরনের রেজিন ও স্টিকি ফ্লেমেবল অর্গানিক সাবস্টেন্স। সাধারণত ফার এবং পাইন গাছ থেকে এগুলো পাওয়া যায়। এর সঙ্গে রঙ মিশিয়ে নেল পলিশ বানানো হয়। তিন ধাপে এই নেল ট্রিটমেন্ট করা হয়। প্রথমে বেসকোট লাগানো হয়, তার ওপরে নেল কালার এবং শেষে টপ কোট লাগানো হয়। প্রতিটি স্টেপের পরে নখের ওপরে ইউভি লাইট ফেলা হয় যাতে পলিশ ভালোভাবে ‘সেট’ করে যায় এবং তাড়াতাড়ি শুকোয়। যাঁরা নখের ন্যাচারাল লুক বজায় রাখার পাশাপাশি হেলদি নখ চান তাঁদের জন্য এই ট্রিটমেন্টটি খুব কাজের।

এয়ারব্রাশড নেলস
নখে ড্রামাটিক এফেক্ট আনতে চাইলে এয়ারব্রাশড নেলস করে দেখুন। পছন্দ মতো স্টেনসিল বাছুন। তার ওপর বেসকোট লাগিয়ে এয়ারব্রাশ টুলের সাহায্যে নখে পেন্ট করুন। এই নেল ট্রিটমেন্ট দু’সপ্তাহ পর্যন্ত একই রকম থাকে। তবে এই নেল ট্রিটমেন্ট করানোর পরে বিশেষ যত্ন নিতে হয়। কোনো রকম কেমিক্যাল যাতে না লাগে, খেয়াল রাখবেন।

প্রফেশনাল ম্যানিকিওর
১) নতুন নেল ট্রিমেন্ট করতে না চাইলে চিরন্তন ম্যানিকিওর তো আছেই। তবে একটা কথা, বাড়িতে করার চেষ্টা করবেন না। প্রফেশনাল হাতের ছোঁয়াই আলাদা।

২) কিউটিকল পুশার দিয়ে কিউটিকল রিমুভ করার পরে কিউটিকল অয়েল অবশ্যই লাগাবেন। কোনোভাবেই ভুলবেন না।

৩) নিয়মিত ম্যানিকিওর করালে একদিকে যেমন হাতের সৌন্দর্য বাড়ে ঠিক তেমনই নখও হেলদি থাকে। দেখতে অন্যরকম লাগে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here