নীরবতা ভাঙলেন দীপিকা, রণবীর ও শাহিদ বনশালিকে মারধরের ঘটনায়

শুধু চলচ্চিত্র জগতের লোকেরাই নয়, বিভিন্ন মহল থেকেই আসতে থাকে প্রতিক্রিয়া।

পদ্মাবতীর সেটে হামলা, পরিচালক সঞ্জয় লীলা বনশালিকে মারধরের ঘটনায় এবার মুখ খুললেন রাজস্থানের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। নীরবতা ভাঙলেন দীপিকা পাডুকোন, রনবীর সিং, শাহিদ কাপুরও। শনিবার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী জি সি কাটারিয়া বলেন, আইনকে সম্মান করা উচিত। কোনও বিষয়ে ক্ষোভ থাকতেই পারে। কিন্তু আইনকে হাতে তুলে নেওয়া কখনওই কাম্য নয়। অন্যদিকে টুইটারে মুখ খোলেন বনশালির ‘রানি পদ্মিনী’ দীপিকা। “শুক্রবারের ঘটনায় আমি হতবাক। খুব খারাপ লাগছে। কিছুতেই মেনে নিতে পারছি না।” টুইট করেন দীপিকা। পাশাপাশি বলেন, “আমি আপনাদের নিশ্চিত করছি পদ্মাবতীতে কোথাও কোনও ইতিহাসের বিকৃতি হচ্ছে না।” রণবীর লেখেন, “এদিনের ঘটনা অত্যন্ত দুর্ভাগ্যজনক। রাজস্থানবাসী বুঝুন, পাশে থাকুন। পদ্মাবতী তৈরির ক্ষেত্রে রাজস্থান ও রাজপুতদের আবেগ অনুভূতি সবটাই মাথায় রাখা হয়েছে।”

সঞ্জয় লীলা বনশালির আগামী ছবি পদ্মাবতীতে ইতিহাসের ভুল ব্যাখ্যা করা হচ্ছে। রানি পদ্মিনীর সঙ্গে আলাউদ্দিন খিলজির যে প্রেমের দৃশ্য ছবিতে রাখা হচ্ছে তার সঙ্গে বাস্তবের কোনও সম্পর্ক নেই। এই অভিযোগ তুলে শুক্রবার জয়পুরে পদ্মাবতীর সেটে হামলায় চালায় রাজপুত কর্ণি সেনার সদস্যরা। তুমুল তাণ্ডব চালানো হয় ছবির সেটে। চলে ভাঙচুর। আক্রমণ করা হয় পরিচালককেও। সঞ্জয় লীলা বনশালির গালে সপাটে চড় মারে কর্ণি সেনার এক সদস্য। শুক্রবার রাত খেকেই এই ঘটনার নিন্দায় সরব হন বলিউডের তারকারা। শুধু চলচ্চিত্র জগতের লোকেরাই নয়, বিভিন্ন মহল থেকেই আসতে থাকে প্রতিক্রিয়া। মুখ খোলেন রাজস্থানের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীও। এমন ঘটনা কখনও সমর্থনযোগ্য নয়। বিষয়টি খতিয়ে দেখা হবে বলে জানান তিনি।

নীরবতা ভাঙলেন দীপিকা পাডুকোন,
নীরবতা ভাঙলেন দীপিকা পাডুকোন,

যদিও এসব কথা মোটে আমল দিতে চায় না রাজপুত কর্ণি সেনা। সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা লোকেন্দ্র সিং কালভি বলেন, “আমাদের নাকের নিচে, রাজপুতদের জায়গায় বসে কেউ ইতিহাসকে বিকৃত করবে! তা হয় না। সঞ্জয় লীলা বনশালির সাহস হবে জার্মানিতে গিয়ে হিটলারের বিরুদ্ধে ছবি বানানোর?”  অন্যদিকে কর্ণি সেনার নেতা কল্যান সিং কালভি বলেন, পদ্মাবতীর শুটিংয়ের জন্য কোনও অনুমতি নেই। তিনি বনশালির সঙ্গে দেখা করার কথাও বলেন। আশুতোষ গোয়াড়িকরের যোধা আকবর মুক্তির আগেও ঝামেলা করেছিল এই সংগঠন। এবারের ঘটনার পর তারা বলে, রাজপুতদের ইতিহাসকে সুরক্ষিত করতেই এই ঘটনা। সূত্রের খবর, শুক্রবারের ঘটনার পরই শনিবার সকালে পদ্মাবতীর টিম নিয়ে মুম্বই ফিরে আসেন বনশালি। আপাতত বাতিল করা হয়েছে জয়পুরের শুটিং শিডিউল। তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী বেঙ্কাইয়া নাইডু ও রাজস্থানের মুখ্যমন্ত্রীকে এই বিষয়ে হস্তক্ষেপ চেয়ে চিঠিও লেখে ইন্ডিয়ান ফিল্মস অ্যান্ড টেলিভিশন ডিরেক্টরস অ্যাসোসিয়েশন।

সূত্রঃ সংবাদ প্রতিদিন

 

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here