পুরুষের যেসব দিক নারীর নজর কাড়ে

পুরুষের যেসব দিক নারীর নজর কাড়ে
অনেকে আপত্তি করলেও এটা ঠিক, প্রেমের ক্ষেত্রে শারীরিক অবয়বটা গুরুত্বপূর্ণ। কয়েক সেকেন্ডের মধ্যে পুরুষের অবয়বটা দেখে নেয় নারী।

আর্টস্টাইল কিউরেটর  

প্রেমের বা প্রেমে পড়ার বাঁধাধরা কোনো নিয়ম নেই। যখন যে কাউকে ভালো লেগে যেতে পারে। তবে কাউকে ভালো লাগা বা কারও প্রেমে পড়ে যাওয়ার ক্ষেত্রে অবশ্যই কিছু না কিছু বিষয় কাজ করে। নারীদের কথাই ধরুন। সঙ্গী বেছে নেওয়ার ক্ষেত্রে তারা পুরুষের বেশ কয়েকটা দিক বিবেচনায় নেয়। সেই বিবেচনাটা হতে পারে বেশ সময় নিয়ে বা হতে পারে তা তাত্ক্ষণিক। নতুন সম্পর্কে জড়ানোর আগে নারীরা দেখে, পুরুষের এমন পাঁচটি দিক তুলে ধরা হয়েছে টাইমস অব ইন্ডিয়ার এক প্রতিবেদনে।

শারীরিক অবয়ব: অনেকে আপত্তি করলেও এটা ঠিক, প্রেমের ক্ষেত্রে শারীরিক অবয়বটা গুরুত্বপূর্ণ। কয়েক সেকেন্ডের মধ্যে পুরুষের অবয়বটা দেখে নেয় নারী। এর মধ্যে রয়েছে উচ্চতা, গায়ের রং, চুল, চোখ সবই। শারীরিক অবয়বের অনেক কিছুই হয়তো মানুষের নিয়ন্ত্রণের মধ্যে নেই, তবে যতটা সম্ভব পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন থাকুন। অন্তত হাত আর পায়ের নখ পরিষ্কার রাখুন।

ফ্যাশনবোধ: নারীর দৃষ্টি আকর্ষণের ক্ষেত্রে আপনার স্টাইল, ফ্যাশন এসব গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠতে পারে। পোশাক ব্যক্তিত্বের পরিচায়ক। এর মানে এই নয় যে আপনাকে সব সময় চিত্রতারকাদের মতো হয়ে থাকতে হবে। তবে ফরমাল প্যান্টের সঙ্গে খেলাধুলার জুতা পায়ে দেওয়ার মতো ফ্যাশন করা থেকে সময় সময় দূরে থাকতে হবে। আপনি হয়তো কিছু মনে করছেন না বা আপনার খারাপ লাগছে না; নারীরা কিন্তু এসব ব্যাপার বেশ ভালো করেই দেখে।

আত্মবিশ্বাস: নারীরা সাহসী, আত্মবিশ্বাসী পুরুষদের পছন্দ করে, যারা নিজের মনের ভাবটা সরাসরি প্রকাশ করে। শুরুতে কথা বলার সময়ই নারী দেখে নেয় আপনি কতটা আত্মবিশ্বাসী, আপনার মানসিকতা ইতিবাচক না নেতিবাচক। নারীর সঙ্গে কথার বলার সময় ইতিবাচক ও বিনয়ী থাকুন। অপ্রাসঙ্গিক কথা বলবেন না। কথা বলার সময় অবশ্যই কেবল নিজের মতামতকেই গুরুত্ব দিতে যাবেন না। তাঁর কথাটাও গুরুত্ব দিয়ে শুনুন। জোর করে স্মার্ট হওয়ার চেষ্টা করবেন না।

 কথা বলার ধরন: নারীর সঙ্গে প্রাথমিক কথাবার্তার সময় বিরক্তির উদ্রেক করবেন না। আলাপচারিতা যতটা সম্ভব চালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করবেন। না হলে তাঁর মনে বিরক্তির ভাব জন্ম নিতে পারে। তাঁর মনোযোগ ধরে রাখুন, আলাপচারিতাটা মনোরম করে তুলুন। আপনি যত বেশি সময় ধরে কথাবার্তা চালিয়ে যাবেন, তত বেশি তিনি আপনার সম্পর্কে জানতে পারবেন। তা ছাড়া তিনি আপনার কথা বলার ধরনও লক্ষ করতে পারেন। তাই একটু সতর্ক থাকুন। উদ্ধত আচরণ করা থেকে বিরত থাকুন।

 রসবোধ: ভালো রসবোধসম্পন্ন পুরুষদের সব সময় নারীরা পছন্দ করে। হাসাতে পারে, এমন পুরুষ নারীদের কাছে জনপ্রিয়। তাদের সঙ্গে কথা বলে নারীরা স্বস্তিবোধ করে। হালকা কথাবার্তা দিয়ে নারীর সঙ্গে আলাপচারিতা শুরু করুন। বেশি সিরিয়াস হবেন না, কথাবার্তায় ইতিবাচক থাকুন। আরেকটা কথা, রসবোধ প্রকাশ করার জন্য প্রথম আলাপচারিতায় কখনোই আপত্তিকর কৌতুক বলতে যাবেন না। ওই একটা কারণই কিন্তু দুজনের মধ্যে দূরত্ব তৈরির জন্য যথেষ্ট!

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here