ফুলকপির মালাইকারি।

গ্রেভি ঘন হয়ে এলে তাতে কাজুবাটা ও ঘি দিন। মাখা মাখা হলে নামিয়ে নিন।

ফুলকপির মৌসুমে আমরা নানা ধরনের রান্না করে থাকি ফুলকপি দিয়ে। অনেক সময় সব চলতি রান্না খেতে খেতে বড় একঘেয়ে লাগে। তাই ফুলকপি দিয়ে  নতুন রান্না শেয়ার করলাম আপনাদের সঙ্গে—খেতে খুব ভাল অথচ একটু নতুন ধরনের।

উপকরণ:

ফুলকপি— ১টি বড়

মটরশুটি— ১/২ কাপ

কাজুবাটা— ৩ টেবিলচামচ

ঘন নারেকেলের দুধ— ১/২ কাপ

লবণ — স্বাদমতো

চিনি— দেড় চা-চামচ

লবঙ্গ— ৪টি

ছোট এলাচ— ৩টি

দারচিনি— ১ ইঞ্চি লম্বা একটি টুকরো

আদাবাটা— ২ চা-চামচ

কাঁচামরিচ বাটা— ৩ চা-চামচ

ঘি— ২ টেবিলচামচ

তেল— ১/২ কাপ

গ্রেট করা টম্যাটো— ১/২ কাপ

দুধ— ১/২ কাপ

পানি — অল্প

কড়াইতে তেল গরম করে টুকরো করা ফুলকপি হাল্কা করে ভেজে নিন।
কড়াইতে তেল গরম করে টুকরো করা ফুলকপি হাল্কা করে ভেজে নিন।

প্রণালী:

ফুলকপি বড় বড় টুকরো করে কেটে নিন। ভাল করে ধুয়ে রাখুন। কড়াইতে তেল গরম করে টুকরো করা ফুলকপি হাল্কা করে ভেজে নিন। ফুলকপি  ভাজা হয়ে গেলে একটা পাত্রে রাখুন। এবার ওই তেলের মধ্যেই গোটা গরম মশলা ফোড়ন দিন। ফোড়ন হয়ে গেলে, তেলের মধ্যে আদাবাটা ও টম্যাটো দিয়ে কষতে থাকুন। কাঁচামরিচ  বাটা, লবণ ও চিনি দিন। মটরশুটি, দুধ, নারকেলের দুধ ও সামান্য পানি দিয়ে ঢাকা দিয়ে খানিকক্ষণ রান্না করুন,  এইবার ভেজে রাখা ফুলকপি দিন।  ঢাকা দিয়ে খানিকক্ষণ রান্না করুন যতক্ষণ না  সেদ্ধ হয়। দেখে নেবেন যেন বেশি সেদ্ধ না হয়। গ্রেভি ঘন হয়ে এলে তাতে কাজুবাটা ও ঘি দিন। মাখা মাখা হলে নামিয়ে নিন। পোলাও বা লুচি-পরোটার সঙ্গে খেতে খুব ভাল লাগবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here