বৈশাখে মিষ্টির ৩ পদ

0
864
চাইলে ঘরেও বানিয়ে নিতে পারবেন এই মিষ্টান্নগুলো

বছরের প্রথম দিন নিয়ে সবার যেন একটু বাড়তি উৎসাহ কাজ করে। বাংলা নববর্ষের প্রথম দিনটির নানা আয়োজনের বড় একটা অংশ হলো খাওয়াদাওয়া। কুড়মুড়ে মুখরোচক নানা ধরনের ঐতিহ্যবাহী খাবার রাস্তায় বের হলেই দেখা যায়। তবে চাইলে ঘরেও বানিয়ে নিতে পারবেন এই মিষ্টান্নগুলো। কুড়মুড়ে কয়েকটি খাবারের রেসিপি মিয়ে আমাদের আজকের আয়োজন।

কদমা
কদমা

কদমা

উপকরণ: চিনি ২ কেজি ও পানি ২ কাপ।
প্রণালি: চিনি ও পানি চুলায় দিয়ে ফুটে উঠলে পানিতে ১ চামচ শিরা দিন। চিনি জমাট বাঁধলে ছড়ানো পাত্রে আইসিং সুগার ছিটিয়ে শিরা ঢেলে অল্প গরম থাকা অবস্থায় রোল করে খুঁটিতে ঝুলিয়ে টানতে হবে। আবার ভাঁজ করুন। এভাবে অনেকবার করলে যখন ভেতরটা ফাঁপানো হবে তখন চপিংবোর্ডে আইসিং সুগার ছিটিয়ে রোল করে নিন। কদমা বানানোর মেকারে চাপ দিয়ে কেটে কদমার আকারে কেটে নিতে হবে। বাতাসে রেখে শুকিয়ে নিন।

বাতাসা
বাতাসা

বাতাসা

উপকরণ: চিনি ৩ কাপ, পানি আধা কাপ, বেকিং পাউডার ১ চা-চামচ, গোলাপ জল ১ টেবিল চামচ ও আইসিং সুগার আধা কাপ।
প্রণালি: চিনি, পানি, গোলাপ জল একসঙ্গে চুলায় দিন। ভালো করে ফুটে উঠলে কড়াইয়ে ফেনা ভরে গেলে বেকিং পাউডার দিয়ে নাড়ুন। ছড়ানো পাত্রে আইসিং সুগার ছিটিয়ে চামচে করে পাত্রে ছোট ছোট বাতাসার আকারে রাখতে হবে। ঠান্ডা হলে বয়ামে ভরে রাখুন।

তিলের চিক্কি
তিলের চিক্কি

তিলের চিক্কি

উপকরণ: তিল ৩ কাপ, গুড় ১ কাপ, এলাচিগুঁড়া আধা চা-চামচ, ঘি ১ টেবিল চামচ ও পানি সিকি কাপ।
প্রণালি: তিল শুকনা খোলায় টেলে নিন। পানি, গুড় একসঙ্গে চুলায় দিয়ে ফোটান। আঠালো হয়ে এলে ঘি, এলাচিগুঁড়া, ২ কাপ তিল দিয়ে চুলায় অল্প জালে কিছুক্ষণ নাড়াচাড়া করে চটচটে হলে চুলা থেকে নামিয়ে নিন। অল্প ঠান্ডা হলে পানিতে হাত ভিজিয়ে তিলের চিক্কির আকারে তিলে গড়িয়ে নিতে হবে। এভাবে সবগুলো করতে হবে।

তথ্যসূত্রঃ বাংলা রেসিপিস ডট কম

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here