ব্যথানাশক ওষুধকে না বলুন, সমাধান করুন ঘরোয়া উপায়ে

আপনি কি সেই দলে, যারা ব্যথা হলেই ব্যথানাশকের খোঁজ করেন? ব্যথানাশক ওষুধে ব্যথা কুপোকাত হলেও এর পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া থাকে এ কথা তো জানেন। তাই এখন থেকে ব্যথা অনুভূত হলে ওষুধের বাক্সের খোঁজ না করে সোজা চলে যান হেঁসেলঘরে। তার পর কী করবেন? জেনে নিন তবে—

মাথাব্যথা

প্রায়ই তীব্র মাথাব্যথা হয়? প্যারাসিটামল বা ব্যথানাশক বামই যে শেষ সমাধান, তা কিন্তু নয়। যাদের দীর্ঘমেয়াদি মাথাব্যথার সমস্যা রয়েছে, তারা রোজ সকালে খালি পেটে লবণসহ আপেল খান(যদি উচ্চ রক্তচাপ না থাকে)। আরাম পেতে গোলাকার একটি পাত্রে গরম পানি নিন। পানিতে কোয়ার্টার কাপ আপেল সাইডার ভিনেগার মিশিয়ে ১০-১৫ মিনিট ভাপ নিন। চেষ্টা করুন, গভীর নিঃশ্বাসের সাহায্যে যতটা সম্ভব ভাপ নিয়ে নিতে। ভাপ নেয়া হয়ে গেলে শুকনা তোয়ালে দিয়ে মুখ মুছে এক গ্লাস সাধারণ পানি পান করুন।

apple-cider-vinegar-in-glass-bottle-and-ripe-fresh-apples

গলাব্যথা

গলাব্যথায় পানিতে তুলসীপাতা সিদ্ধ করে গারগল করুন। দ্রুত ফলাফল পেতে গরম পানিতে আধা চা চামচ লবণ ও আধা চা চামচ বা আরো কম বেকিং সোডা দিয়ে ভালোভাবে নাড়ুন। ঈষদুষ্ণ হয়ে এলে গারগল করুন। এভাবে রোজ তিনবেলা করুন।

resize44335

সাইনোসাইটিসের ব্যথা

আধ কাপ গরম পানিতে দুই টেবিল চামচ আপেল সাইডার ভিনেগার ও এক চিমটি মরিচ গুঁড়ো ভালোভাবে নেড়ে দিনে দুই বেলা পান করুন। তবে গরম পানির ভাপ নিলে এই ব্যথায় বেশ আরাম পাওয়া যায়। ভাপ নেয়ার জন্য পানি ফোটানোর সময় দু-চারটা দারচিনি ছেড়ে দিলে ভালো ফল পাওয়া যাবে।

মিনস্ট্রুয়াল পেইন

মিনস্ট্রুয়াল পেইন একেকজনের ক্ষেত্রে একেক রকম হয়। এ সময় অনেকে ঠাণ্ডা সহ্য করতে পারেন না। ব্যথা কমাতে দুই কাপ পানিতে দুই টেবিল চামচ আদা কুচি ভালোভাবে ফোটান। পানি কমে এক কাপ হয়ে এলে ছেঁকে এক চা চামচ লেবুর রস ও মধু মিশিয়ে পান করুন। ঠাণ্ডায় সমস্যা না থাকলে রোজ আধা কাপ ঠাণ্ডা পানিতে মাঝারি সাইজের লেবুর অর্ধেকটা মিশিয়ে খেতে পারেন।

দাঁতে ব্যথা

দাঁতে ব্যথার অভিজ্ঞতা কমবেশি সবারই রয়েছে। বিভিন্ন কারণে দাঁতে ব্যথা হতে পারে। বিশেষ কোনো সমস্যা ছাড়া দাঁতে ব্যথা বেশিদিন থাকে না। তবে ব্যথা হলে প্রথমে টুথপেস্টের সঙ্গে রসুনবাটা ও লবণ দিয়ে ব্রাশ করুন। দ্বিতীয় ধাপে কয়েকটি লবঙ্গ একসঙ্গে কিছুক্ষণ চিবিয়ে কুলকুচি করে নিন। দুই বেলা এই নিয়মে চলুন।

photo-1452420959

কানে ব্যথা

কানে ব্যথা হলে স্টিলের বাটিতে তিন বা চার টেবিলচামচ সরষের তেল ও এক চা চামচ রসুন কুচি চুলায় অল্প আঁচে গরম করুন। মিশ্রণটি গরম হয়ে ফেনা তৈরি করবে। চুলা থেকে নামিয়ে সহনীয় পর্যায়ে ঠাণ্ডা হলে ড্রপার দিয়ে কয়েক ফোঁটা কানের ভেতরে ফেলে দিন। এছাড়া দুই টেবিল চামচ আপেল সাইডার ভিনেগারের সঙ্গে এক চা চামচ পানি মিশিয়ে গরম করুন। ঈষত্ গরম থাকতে মিশ্রণটিতে কটন বাড ভিজিয়ে কানের ভেতরটা মুছে নিন। আপেল সাইডার ভিনেগার ব্যাকটেরিয়ানাশক। ফলে সহজেই ব্যাকটেরিয়ার সংক্রমণ প্রতিরোধ করে।

পেশির ব্যথা

পেশির ব্যথা কমাতে গরম পানি খুব সহজ সমাধান। বাড়িতে বাথটাব থাকলে গরম পানিতে গা ডুবিয়ে বসে থাকুন ২০ মিনিট। নয়তো আদা সিদ্ধ পানিতে লবণ দিয়ে গোসল সেরে নিতে পারেন। লবণ পেশি রিলাক্স করে।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here