বয়স কমাতে তামার গ্লাসে পানি পান করুন

তামায় এমন কিছু গুণ রয়েছে, যা ক্ষতিকারক ব্যাকটেরিয়া মেরে ফেলে।

তামার গ্লাসে পানি পান করার উপকারিতার কথা পড়লে আপনি অবাক হয়ে যাবেন। কপার মানব শরীরের জন্য অপরিহার্য একটি উপাদান। বিভিন্ন প্রকার খাদ্যে কপার খনিজটি বিদ্যমান। তবে কপারযুক্ত খাদ্য ছাড়াও এ উপাদান আমাদের শরীরে প্রবেশ করে অন্য উপায়ে। অনেকেই তামার মগ বা গ্লাসে পানি পান করেন। আদিতে তামার পাত্রে পানি পান ও সংরক্ষণ উভয়ই করা হতো। এতে পাত্র থেকে তামা পানিতে মিশে গিয়ে পানি বিশুদ্ধকরণ প্রক্রিয়া সম্পন্ন করত। সহজ কথায় তামা পানি বিশুদ্ধ করে।

আদিতে তামার পাত্রে পানি পান ও সংরক্ষণ উভয়ই করা হতো।
আদিতে তামার পাত্রে পানি পান ও সংরক্ষণ উভয়ই করা হতো।

তামায় এমন কিছু গুণ রয়েছে, যা ক্ষতিকারক ব্যাকটেরিয়া মেরে ফেলে। ফলে এটি পেটের প্রদাহ, আলসার, বদহজম ও সংক্রামকের সেরা ওষুধ হিসেবে কাজ করে। কপার পেট পরিষ্কার করে, যকৃত ও কিডনির কাজ সুষ্ঠুভাবে পরিচালনায় সহায়তা করে; শরীরের দূষিত পদার্থ বের করে দেয়। দ্রুত ওজন কমাতে তামার গ্লাস বা মগে পানি রেখে দিন কয়েক ঘণ্টা। এর পর পান করুন। হজমশক্তি বাড়ানোর পাশাপাশি তামা শরীরের চর্বি ভেঙে তা অপসারণ করতে সহায়তা করে। প্রদাহনাশক, ভাইরাস ও ব্যাকটেরিয়ানাশক উপাদান সমৃদ্ধ তামা ক্ষত নিরাময় করে দ্রুত। তা ছাড়াও রোগ প্রতিরোধক্ষমতা বাড়ায় এবং নতুন কোষ গঠনে সাহায্য করে। মজার ব্যাপার হলো, তামার গ্লাসে পানি পান করলে বয়স কমে যায়! কারণ এর অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট ও কোষ গঠন গুণাবলি ফ্রি রেডিক্যালসের সঙ্গে লড়াই করে বলিরেখা পড়তে বাধা দেয়। আবার স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের ধারণা অনুযায়ী, যাদের শরীরে কপারের ঘাটতি থাকে, তারাই মূলত থাইরয়েড সমস্যায় ভোগে। তাই তামার গ্লাসে পানি রেখে খেলে এসব সমস্যা আপনি সহজেই সমাধান করতে পারবেন।

সূত্রঃ বণিকবার্তা

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here