যেভাবে সাজাবেন ক্রিস্টমাস ট্রি

ইদানীং তারার পরিবর্তে ফুল অথবা যিশুর মূর্তিও ব্যবহার করা হয়।

বিদায়ের প্রহর গুনছে ২০১৬। আসন্ন বড়দিন। এই বড়দিনের অন্যতম আকর্ষণ নানান সাজে সজ্জিত ঐতিহ্যের অংশ ক্রিসমাস ট্রি। অলঙ্কার, আলো আর ট্রিতে নিবেদিত উপহার আশা জাগায় পরবর্তী সকালের সান্তা’স উপহারের। এর শিখরে স্থাপিত তারা, প্রতিটি শাখায় ক্যান্ডি আর ডোরনব মনে করিয়ে দেয় বর্ষ শেষ আর উৎসবের কথা।

দি ক্রিসমাস ট্রি

গৃহে ক্রিসমাস ট্রির ধারণার প্রচলন জার্মানদের হাত ধরে। ষোড়শ শতকে জনৈক জার্মান প্রিচার মার্টিন লুথার প্রথম গৃহ অভ্যন্তরে ক্রিসমাস ট্রি স্থাপন করেন। প্রাচীনকালে এ গাছ প্রাথমিকভাবে প্যাগন ও খ্রীস্টানরা ব্যবহার করত শীতের শেষে বসন্তকে স্বাগত জানানোর প্রতীক রূপে। প্রকৃত ‘ফার’ আর ‘ওক’ গাছের পরিবর্তে এখন প্লাস্টিক পাতাযুক্ত গাছ ব্যাপক ব্যবহৃত হচ্ছে পৃথিবীজুড়ে।

বিভিন্ন ধরনের ক্রিসমাস ট্রি এখন সহজলভ্য আপনার গৃহে বড়দিনের উৎসবকে পূর্ণতা দিতে। সজ্জিত ক্রিসমাস ট্রি যেমন বড়দিনের সন্ধ্যাকে পূর্ণতা দেয়, মনে করিয়ে দেয় যিশু খ্রিস্টের জন্মদিনটিকে, তেমনি শুরু হয় নতুন বছরের সন্ধ্যা গণনা।

দি স্টার

ক্রিসমাস ট্রির শীর্ষে স্থাপিত তারা মনে করিয়ে দেয় বেথেলহেমের সেই তারাদের, যারা পথ দেখিয়েছিল তিনজনকে যিশুকে স্টেবলে (আস্তাবল) খুঁজে পেতে। ইদানীং তারার পরিবর্তে ফুল অথবা যিশুর মূর্তিও ব্যবহার করা হয়।

টিনসেল

টিনসেল শব্দটির উৎপত্তি ফরাসী শব্দ ‘ইসটিন সেল’ থেকে, যার অর্থ চমকানো। টিনসেল এখন কেবল ক্রিসমাস ট্রি সজ্জায়ই নয়, অন্যান্য উৎসবেও ব্যবহৃত হয়। এটি প্রস্তুত হয় প্রকৃত রুপা ব্যবহার করে আর বিভিন্ন রঙের হয়ে থাকে।

ক্যান্ডি কেইন

এর আকৃতি ভেড়ার পালকের ব্যবহৃত সামগ্রীর কথা মনে করিয়ে দেয়। এটি ভেড়ার পালকের লাঠি যা দিয়ে যিশু ভেড়ার পাল পরিচালনা করতেন, তার প্রতীক হিসেবে ব্যবহৃত হয়। ঐতিহাসিক মত হচ্ছে, এতে ব্যবহৃত লাল রং যিশুর পবিত্র রক্ত আর সাদা খ্রীস্টানদের মৃত্যুপরবর্তী জীবনের প্রতীক। এ ক্যান্ডিগুলো কেবল সজ্জার উপকরণ নয়, এর স্বাদের জন্য শিশুদের কাছে খাবার হিসেবেও প্রিয়।

মালা

অনেকের মতে এ মালা যিশুকে ক্রুশবিদ্ধ করার সময় পরানো মালার প্রতিনিধিত্ব করে। আর এখনকার সময় এটি ঈশ্বরের ভালবাসা ও চিরন্তন শান্তির প্রতীক রূপে বিবেচিত হয়। ফুল, পাতা আর ফল দিয়ে এগুলো সাজানো হয়। ধারণা করা হয়, বহু রোমান সম্রাটও এরূপ চক্রাকার মালা পরিধান করতেন।

ঘণ্টা

নানান আকৃতি আর রঙের ঘণ্টা ব্যবহার করা হয় ক্রিস্টমাস ট্রি সজ্জায়। এটি ভেড়ার পালকে বাড়ি ফিরে আসার আহ্বান জানানো ঘণ্টার প্রতীক।

লাইট

আকাশের তারার প্রতীক হিসেবে লাইট ব্যবহার হয় ক্রিসমাস ট্রিতে। ইউরোপীয় অঞ্চলে এখন ব্যবহার করা হয় বড়দিনকে স্বাগত জানাতে।

ক্যান্ডিগুলো কেবল সজ্জার উপকরণ নয়, এর স্বাদের জন্য শিশুদের কাছে খাবার হিসেবেও প্রিয়।
ক্যান্ডিগুলো কেবল সজ্জার উপকরণ নয়, এর স্বাদের জন্য শিশুদের কাছে খাবার হিসেবেও প্রিয়।

আপনি যা দিয়ে সাজাতে পারেন

এবারের বড়দিনে আপনার ক্রিসমাস ট্রিতে নতুনত্ব আনতে পারেন নিচের পরামর্শগুলো অনুসরণ করে।

খাদ্যসামগ্রী ব্যবহার করুন

আপনি যদি ঐতিহ্য অনুসরণ করতে চান তাহলে নানান ধররের খাদ্যসামগ্রী ব্যবহার করতে পারেন। যেমন আপেল, নাট, চকলেট ইত্যাদি।

রঙ্গিন পমপম

নতুনত্ব আনতে ব্যবহার করুন হরেক রঙের পমপম। আর বিকল্প হিসেবে উলের বল ব্যবহার করতে পারেন ক্রিসমাস ট্রি সজ্জায়।

ফুল দিয়ে সাজান

আপনি যদি ভিন্নতা আনতে চান আপনার ক্রিসমাস ট্রি সজ্জায় তাহলে শুধু ফুল দিয়ে সাজান ক্রিসমাস ট্রিটি। এটি পরিবেশবান্ধবও বটে।

লিখেছেনঃ আকিল জামান ইনু

 

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here