রূপচর্চায় টুথপেস্টের ব্যবহার

0
383

শিরোনাম দেখে চমকে উঠলেন? ভাবছেন দাঁত ব্রাশ করতে তো প্রতিদিন  দুবার করে টুথপেস্ট ব্যবহার করতে হয় এতো সবাই জানে, তাই বলে রূপচর্চায় টুথপেস্ট! গল্প হলেও সত্যির মতো এই তথ্যটিও মিথ্যা নয়। এক নজরে দেখে নেয়া যাক রূপচর্চার কোন কোন ক্ষেত্রে ব্যবহার করা যায় টুথপেস্ট।

হোয়াইট হেডস দূর করতেঃ

ত্বকের বিভিন্ন সমস্যার মধ্যে হোয়াইট হেডস অন্যতম প্রধান ভূমিকা পালন করে। ধুলা-ময়লা, মেকআপের ধকল, ত্বকে সংক্রমণ ইত্যাদির কারণে লোমকূপ বন্ধ হয়ে হোয়াইট হেডস তৈরি হয়। হোয়াইট হেডস রয়েছে সেসব জায়গায় সেখানে পুরু করে টুথপেস্টের প্রলেপ লাগিয়ে রাখুন পনের মিনিট। শুকানোর পর আলতো করে তুলে মুখ ধুয়ে ফেলুন। হোয়াইট হেডস থাকবে না।

ব্রণ দূর করতে :

শত চেষ্টার পরেও মুখে ব্রণের সমস্যা রয়েই গেছে যারা এমন সমস্যায় ভুগছেন তারা রাতে ঘুমানোর আগে ব্রণের উপর টুথপেস্টের প্রলেপ লাগিয়ে ঘুমাতে পারেন। সকালে উঠে দেখবেন ফোলা কমে গেছে এবং ব্যথাও কমে গেছে। এমনকি নিয়মিত টুথপেস্ট ব্যবহার করলে ব্রণ ওঠার পরিমাণও অনেকাংশে কমে যায়।9903d53dcc2577e5072bd22798d67fd2

বলিরেখা দূর করতেঃ

অযত্ন অবহেলায় অনেকেরই অকালে ত্বকে বলিরেখা পড়ে। সেজন্য ঘন টুথপেস্টে পানি মিশিয়ে পাতলা করে মুখ, গলা, ঘাড়ে প্রলেপ লাগান। শুকিয়ে যাওয়ার পর ভালো করে মুখ ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে অন্তত তিন দিন এভাবে ব্যবহার করলে বলিরেখার সমস্যা দূর হবে।

ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়াতে :

বাইরে যাওয়ার আগে সাধারণ ফেসওয়াসের মতো টুথপেস্ট ব্যবহার করতে পারেন। প্রচুর পরিমাণে ঠাণ্ডা পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন। দেখবেন অনুজ্জ্বল ত্বকেও উজ্জ্বলতার ছটা বিরাজ করবে।

নিত্যদিনের ত্বকের সমস্যা দূর করতে কাজে লাগতে পারে টুথপেস্ট। আপনার যদি এই ধরণের কোন সমস্যা থাকে তাহলে অচিরেই ব্যবহার করুন টুথপেস্ট আর ফলাফল দেখে নিন নিজেই।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here