শরীরের দুর্গন্ধ নিয়ে দুশ্চিন্তা? বেছে নিন ঘরোয়া সমাধান

0
400
প্রাকৃতিক উপায়ে কোন রকমের হ্যাপা ছাড়াই আপনি দূর করতে পারবেন শরীরের বিরক্তিকর দুর্গন্ধ।

মুখের দুর্গন্ধ বা শরীরের দুর্গন্ধ শুধু বিব্রতকরই নয়, একইসাথে এটি আপনার জীবনযাপন রীতির দৈন দশার দিকেও আঙুল উঠায়! কেন খামোখা এই ঝামেলা সহ্য করতে যাবেন? অতিরিক্ত ঘাম, নিয়মিত গোসল না করা, ব্যাকটেরিয়ার সংক্রমণ প্রভৃতি কারণে হতে পারে শরীরের দুর্গন্ধ।

আপনার জন্য খুশির খবর নিয়েই আমাদের আজকের আয়োজন। প্রাকৃতিক উপায়ে কোন রকমের হ্যাপা ছাড়াই আপনি দূর করতে পারবেন শরীরের বিরক্তিকর দুর্গন্ধ। ডিওডরেন্ট কেনার টাকাটা এখন নাহয় খরচ হোক কোন ভালো কাজে!

চলুন দেখে আসা যাক শরীরের দুর্গন্ধ দূর করার প্রাকৃতিক কয়েকটি উপায়।

গোসলের সঙ্গী হোক ভিনেগারঃ

ভিনেগার তা সাদাই হোক আর আপেল সিডারই হোক, ত্বকের পিএইচ লেভেল কমিয়ে অ্যান্টি ব্যাকটেরিয়ার জন্য সুন্দ একটি পরিবেশ তৈরি করে দেয়। বিশেষজ্ঞরা বলেন অম্লীয় পরিবেশে ব্যাকটেরিয়ারা বাড়তে পারে না, কাজেই দুর্গন্ধ তৈরি হওয়ার কোন প্রশ্নই আসে না। গোসল করতে যাওয়ার আগে বগলে, পায়ে, বুকে বা শরীরের যেসব অংশে ঘাম বেশি হয়ে দুর্গন্ধ বের হয় সেসব অংশে ভিনেগার মেখে নিন। তবে বগল বা অন্য কোন জায়গা শেভ করার পরপরই ভিনেগার লাগাবেন না। ত্বকের ছোট্ট একটি অংশের উপর প্রথমে ভিনেগার প্রয়োগ করে যদি কোন জ্বালা অনুভব না করেন তাহলেই শরীরের বাকি অংশে ভিনেগার ব্যবহার করতে পারেন।

জুতা পরিবর্তন হতে পারে সমাধানঃ

আমাদের অনেকেরই একটি কমন ভুল ধারণা আছে যে শরীরের দুর্গন্ধ শুধু আন্ডারআর্ম থেকেই বের হয়। কিন্তু শরীরের অন্যতম প্রধান দুর্গন্ধ নিঃসরক গ্রন্থি থাকে আপনার পায়ে। যে কারনে মোজা বা জুতা থেকে আসতে থাকে দম বন্ধ হয়ে যাওয়ার মতো দুর্গন্ধ। এর থেকে মুক্তি পাওয়ার খুব সহজ উপায় হল জুতা খুলে বাতাসে শুকাতে দেওয়া। এতে জুতার ভিতরে জন্ম নেয়া ব্যাকটেরিয়ারা মরে যায়। আমেরিকান ডক্টর বার্নের মতে প্রতি ৫০০ মাইল যাওয়ার পর সবার উচিৎ ঐ জুতা পরিবর্তন করে ফেলা।

আন্ডারআর্ম বা বগলে লোম বেশি থাকলে তা ব্যাকটেরিয়াদের বেড়ে ওঠার জন্য অনুকুল পরিবেশ সৃষ্টি করে
আন্ডারআর্ম বা বগলে লোম বেশি থাকলে তা ব্যাকটেরিয়াদের বেড়ে ওঠার জন্য অনুকুল পরিবেশ সৃষ্টি করে

নিয়মিত আন্ডারআর্ম শেভ করুনঃ

আন্ডারআর্ম বা বগলে লোম বেশি থাকলে তা ব্যাকটেরিয়াদের বেড়ে ওঠার জন্য অনুকুল পরিবেশ সৃষ্টি করে। লোমের ঘাম নিঃসরন করার ক্ষমতা বেশি এবং তা খুব দ্রুত দুর্গন্ধ শোষণ করে নেয়। কাজেই বগলে লোম থাকাটা শরীরের দুর্গন্ধের জন্য অন্যতম দায়ী বস্তু। নিয়মিত আন্ডারআর্ম শেভ করলে এই দুর্গন্ধ অনেকটাই কমিয়ে আনা যায়।

 

ব্যবহার করতে পারেন তেল শোষণকারী কাগজঃ

যদি আপনার খুব বেশি ঘাম হয় আর আপনি যদি মনে করেন যে এতে আপনার শরীরের দুর্গন্ধ দ্রুত ছড়িয়ে পড়বে তাহলে আপনি ব্যবহার করতে পারেন অয়েল ব্লটিং পেপার বা তেল শোষণকারী কাগজ। আর্দ্রতা শোষণে এটি বেশ কার্যকর। কাজেই তেল শোষণকারী একটি কাগজ আপনার বগলে বা শরীরের যে অংশে বেশি ঘাম হয় সেখানে রেখে দিন। ঘাম না হলে দুর্গন্ধ হবে কোত্থেকে?

এছাড়া বাইরে বের হওয়ার আগে ডিওডরেন্ট লাগাতে একদম ভুলবেন না!

তথ্যসূত্রঃ মেডিকেল ডেইলি ডট কম, উইকি হাউ, টপ ১০ হোম রেমেডিস

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here