শরীর বিষমুক্ত করবে ভেষজ চা!

বিভিন্ন ধরনের খাবার ও রোজকার পানীয় দ্বারাই শরীর ডিটক্সিফাই করা সম্ভব। সবচেয়ে সহজ পদ্ধতি হচ্ছে চা পান!

খাবার, প্রসাধনীর রাসায়নিক উপাদান এবং সূর্যের অতিবেগুনি রশ্মি থেকে শরীরে টক্সিন প্রবেশ করে। আমাদের দেহে যদি অতিমাত্রায় টক্সিন জমা হয়, তাহলে তা জন্ম দিতে পারে বিভিন্ন অসুখের। কমে যেতে পারে রোগ প্রতিরোধক্ষমতাও। তাই শরীরকে টক্সিনমুক্ত বা ডিটক্সিফাই করা প্রয়োজন। কিন্তু তা কীভাবে? বিভিন্ন ধরনের খাবার ও রোজকার পানীয় দ্বারাই শরীর ডিটক্সিফাই করা সম্ভব। সবচেয়ে সহজ পদ্ধতি হচ্ছে চা পান! জেনে নিন ছয়টি চায়ের খোঁজ, যা শরীরকে করে বিষমুক্ত—

১। নিমের চা

দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া ও ভারতে নিমপাতা পরিচিত একটি ঔষধি উপাদান। চর্মরোগসহ নানা রোগ সারাতে নিমের তুলনা নেই। এখন তো বিভিন্ন জায়গায় নিমের চা কিনতে পাওয়া যায়। পানিতে নিমপাতা সিদ্ধ করে খেলে ত্বক ভালো থাকে। ভিটামিন ‘সি’ রয়েছে বলে নিমের চা লিভারের জন্য উপকারী।

২।কাঁচা হলুদ পানি

শরীর ও ত্বক দুটোরই টক্সিন দূর করে কাঁচা হলুদ। পানিতে কাঁচা হলুদ কুচি ১৫ মিনিট সিদ্ধ করুন। ছেঁকে গ্লাসে রেখে দিন সহনীয় মাত্রায় ঠাণ্ডা হওয়া পর্যন্ত। কাঁচা হলুদ প্রাকৃতিক রক্ত পরিষ্কারক। এটি পিত্তরস তৈরি করে ও লিভারের টক্সিন দূর করে।

৩। গ্রিন টি

এখনকার সময়ে সচেতন এমন কোনো ঘর নেই, যেখানে গ্রিন টি পাওয়া যাবে না। শরীর বিষমুক্ত করতে গ্রিন টি সবচেয়ে বেশি কার্যকর। অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট রয়েছে তাই গ্রিন টি শরীরের টক্সিন দূর করে ও রোগ সারিয়ে তোলে। ওজন কমানোর ডায়েটে গ্রিন টি থাকবে সবার উপরে। তাছাড়া এটি হূদরোগ, ডায়াবেটিস ও আলজেইমার্স হওয়ার ঝুঁকি দূর করে।

৪। ত্রিফলা ভেজানো পানি

কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করতে খালি পেটে ত্রিফলা ভেজানো পানি পানের রীতি রয়েছে। অন্ত্র ভালো রাখতে ও শরীর শোধন করতে ত্রিফলা ভেজানো পানির সঙ্গে একটু হালকা গরম পানি মিশিয়ে পান করুন।

৫। রসুন চা

রসুনের নানা উপকারিতা রয়েছে। মেক্সিকো ও স্পেনে কাশি ও ঠাণ্ডাজ্বরের দাওয়াই হিসেবে রসুন চা খাওয়া হয়। রসুনের চায়ে যে সালফার থাকে, তা শরীর ডিটক্সিফাই করে।

৬। মরিচের চা

মরিচের চা শরীর পরিশোধন করে। তাছাড়া এটি শক্তিও বাড়ায়। এই চা খেতে সাহস পেতে কাপে যোগ করুন লেবুর রস ও মধু।

তথ্যসূত্রঃ বণিক বার্তা

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here