সেন্টমার্টিনের ৫টি হোটেল ও রিসোর্টের খোঁজ-খবর

0
344
হোটেল ব্লু মেরিন থেকে নেয়া দ্বীপটির প্রাকৃতিক দৃশ্য

শীত চলে এসেছে। এখন অনেকে ছুটি পেলেই বেরিয়ে পড়বেন দেশ-বিদেশের বিভিন্ন আকর্ষনীয় পর্যটনকেন্দ্রে। আর পর্যটকদের আগ্রহের কেন্দ্রবিন্দুতে সবসময়ই থাকে ‘বঙ্গোপসাগরের টিপ’ বলে খ্যাত সেন্টমার্টিন। অন্যান্যবারের মতো এবারও অসংখ্য পর্যটক পাড়ি জমাবেন সেন্টমার্টিনে।

কিন্তু রাত্রিযাপনের জন্য এই দ্বীপে হোটেল বা রিসোর্ট ঠিক করতে গিয়ে সমস্যায় পড়ে যান অনেকেই। তাদের কথা বিবেচনা করে সেন্টমার্টিনের কয়েকটি হোটেল ও রিসোর্টের সংক্ষিপ্ত পরিচিতি তুলে ধরা হলো:

০১) হোটেল ব্লু মেরিন

নিঃসন্দেহে সেন্টমার্টিনের সেরা হোটেল। জেটি থেকে সামান্য দূরত্বে অবস্থিত হোটেলটির অবকাঠামো খুবই চমৎকার। তিনতলা বিশিষ্ট এই হোটেলে ৩৪ টি বিলাসবহুল রুম সহকারে নিজস্ব রেস্ট্যুরেন্ট রয়েছে।

তবে বাজারের কাছে বলে এর আশেপাশে মানুষজনের সমাগম খুব বেশী। এছাড়া এই রুমগুলো থেকে সরাসরি বীচ দেখা যায় না। ফেইসবুকে ব্লু মেরিন হোটেলের রেটিং খুব ভালো ৪.৩০/৫.০০ (৭১টি রিভিউ)। এর রুমভাড়া ২৫০০-৩৫০০ টাকা।

যোগাযোগঃ ০১৭১৩-৩৯৯০০০ (ঢাকা), ০১৭১৩-৩৯৯২৫০ (সেন্টমার্টিন),

০২) নীল দিগন্ত রিসোর্ট

সেন্টমার্টিন দ্বীপের দক্ষিণ-পশ্চিমে অবস্থিত সুন্দর একটি রিসোর্ট। এর আয়তনও বেশ বড়ো। অস্তাচল, ছায়াবিথি, তরুছায়া ও নীপবন ক্যাটাগরিতে বিভক্ত এর মোট রুমের সংখ্যা ৩৮ টি। রেস্ট্যুরেন্টও রয়েছে এখানে। অবশ্য এই রিসোর্টের সমস্ত রুমই টিনশেড। রুমভাড়া ২,০০০-৪,৫০০ টাকা।

এর সমস্যা হলো, জেটি থেকে বেশ খানিকটা দূরে হওয়ায় ভ্যানভাড়া গুনতে হবে অন্তত দু’শ টাকা। এছাড়া রুম থেকে বীচ দেখারও কোন সুযোগ নেই। অন্যান্য সবকিছু ঠিকঠাক আছে। তবু ফেইসবুকে এর রিভিউ ভালো নয় কেন, বুঝলাম না। রেটিং হলো ৩.১০/৫.০০ (১৮টি রিভিউ)।

যোগাযোগঃ ০১৭৩০-০৫১০০৫, ০১৭৩০-০৫১০০৬, ০১৭৩০-০৫১০০৭

০৩) সী ভিউ রিসোর্ট এন্ড স্পোর্টস

এর অবস্থান নর্থ বীচে, জেটি থেকে সাত মিনিট হাটার দূরত্বে। নতুন ম্যানেজমেন্টের অধীনে এসে রিসোর্টের খোলনলচে একেবারে বদলে গেছে। সম্প্রতি যারা এখানে থেকেছেন, সবাই এই দ্বিতল রিসোর্টটির প্রশংসা করেছেন। নিজস্ব রেস্ট্যুরেন্টসহ এখানে ১৯ টি রুম ও ০৪ টি তাবু রয়েছে। সবচেয়ে বড়ো সুবিধা হলো, এর অধিকাংশ রুম থেকে সমুদ্র দেখা যায়। এছাড়া এখানে জুসবার, ফ্রি ওয়াইফাই (শিগগীর নাকি আসছে), ক্যান্ডেল লাইট ডিনার, স্পোর্টস ও কমপ্লিমেন্টারি ব্রেকফাস্টের সুবিধা রয়েছে।

রাত্রিযাপনের জন্য এই দ্বীপে হোটেল বা রিসোর্ট ঠিক করতে গিয়ে সমস্যায় পড়ে যান অনেকেই
রাত্রিযাপনের জন্য এই দ্বীপে হোটেল বা রিসোর্ট ঠিক করতে গিয়ে সমস্যায় পড়ে যান অনেকেই

সী ভিউ রিসোর্টের নিজস্ব রেস্ট্যুরেন্টটির খাবারের মান ভালো হলেও এটি রিসোর্ট থেকে প্রায় ত্রিশ মিটার দূরে অবস্থিত। এর প্রতি রুমের ভাড়া ১,৪০০-৩,০০০ টাকা। ফেইসবুকে এই রিসোর্টের রেটিং দেখলাম অসাধারন ৫.০০/৫.০০ (৯০টি রিভিউ)।

যোগাযোগঃ ০১৮৪০-৪৭৭৭০৭ (ঢাকা), ০১৮৪০-৪৭৭৯৫৬ (সেন্টমার্টিন)

০৪) লাবিবা বিলাস রিসোর্ট

সুপ্রশস্ত এই দ্বিতল রিসোর্টে মোট ৪৩ টি রুম, একটি রেস্ট্যুরেন্ট ও একটি ছোট্ট সেমিনার রুম রয়েছে। এর অবস্থান নর্থ বীচে। শিপঘাট থেকে যেতে একটু বেশী সময় লাগে, হাঁটাপথে ১৫-২০ মিনিট। এর রুমভাড়া ১,৬০০-৪,০০০ টাকা।

রিসোর্টের রুমগুলোর অবস্থা খুব একটা ভালো নয়। তবে এই রিসোর্টে সবরকম আধুনিক সুযোগসুবিধার পাশাপাশি বিভিন্ন ধরনের খেলাধূলার ব্যবস্থা রয়েছে। ফেইসবুকে এর রেটিং ৩.৩০/৫.০০ (২৪টি রিভিউ)।

যোগাযোগঃ ০১৭৪৪-১৩৬১৪৫ (ঢাকা), ০১৮৩৪-২৬৭৯২২ (সেন্টমার্টিন)

০৫) হোটেল প্রাসাদ প্যারাডাইজ

এই দ্বিতল হোটেলটির অবস্থান ব্লু মেরিনের কিছুটা উত্তরে। এখানে মোট ১৬ টি কক্ষ রয়েছে। হোটেলের সাথে রেস্ট্যুরেন্টও আছে। বীচ থেকে একটু দূরে বলে অল্প কয়েকটি রুম থেকে সমুদ্রের খানিকটা দেখা যায়। প্রাসাদ প্যারাডাইজের প্রতিটি রুমের ভাড়া ২,০০০-৪,০০০ টাকা।

ফেইসবুকে এর রেটিং বেশ ভালো ৪.২০/৫.০০ (৪১টি রিভিউ)।

যোগাযোগঃ ০১৫৫৬-৩৪৭৭১১

তথ্যসূত্রঃ ট্রাভেলারস অফ বাংলাদেশ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here