হলে থেকেও মনের মতো ঘর

এইচএসসি পাসের পর বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনার জন্য ঢাকা আসতে হয় অনেককে। ঢাকায়  কোনো আত্মীয় নেই বলে থাকতে হচ্ছে ছাত্রী হোস্টেলে, কিন্তু সহপাঠীদের সঙ্গে হোস্টেলে থাকতে এসে ঘরটাকে আপন মনে হচ্ছে না। মনের মতো কিছুই নেই। ঘরে যেটুকু আসবাব আর আনুষঙ্গিক, তাতে রয়েছে কেবল প্রয়োজনের ছাপ। নান্দনিকতার লেশমাত্র নেই। সেক্ষেত্রে সোজাসাপ্টা ঘরটাকে নিজের মতো করে সাজিয়ে নিলে, মনে হবে না আপনি বাড়ি থেকে দূরে আছেন। ঘটা করে খুব যে কিছু করা সম্ভব তাও নয়, যেটুকু করাই যায়—

*হোস্টেল বা হলে যেসব খাট ব্যবহার করা হয়, সেগুলো কোনো রকমে পিঠ পাতার মতো। ঘরটাকে একটু ক্রিয়েটিভ লুক দিতে নিজেই হেডবোর্ড বানিয়ে নিন। খাটের মাথার দিকের দেয়ালে পুরনো সুন্দর মলাটের বইগুলো আড়াআড়িভাবে সারিবদ্ধ করে রাখুন। উলম্বভাবে চার-পাঁচটি সারি থাকবে। দেয়ালের সঙ্গে বইগুলো জুড়ে দিতে ডবল সাইডেড স্কচটেপ ব্যবহার করুন।

*যদি আপনি ভালো আঁকিয়ে হয়ে থাকেন, তাহলে দেয়ালে এঁকে দিন জ্যামিতিক চিত্র। এখন শপিংমলে কাপড়, টিস্যু ও প্লাস্টিকের সুন্দর সুন্দর ফুলের স্টিক পাওয়া যায়। সেগুলো দিয়ে খুব সুন্দরভাবে খাটের মাথার পাশের দেয়াল সাজিয়ে তুলতে পারেন। ফুল লাগাতে ব্যবহার করতে পারেন স্কচটেপ অথবা গ্লু।

room1

*যেহেতু এসব জায়গায় ঘরের রঙ পছন্দমতো পাল্টানো সম্ভব হয়ে ওঠে না, তাই বিছানার চাদর, পর্দা, বালিশের ওয়ার, কুশন, পাপশ এগুলোর রঙ ও ডিজাইনে সামঞ্জস্যতা রাখার চেষ্টা করুন।

*দেয়ালটিকে একটু প্রাণবন্ত করে তুলতে ফেসবুক বা ইনস্টাগ্রাম থেকে নিজের আনন্দঘন মুহূর্তের ছবিগুলো আগে প্রিন্ট করিয়ে নিন। তার পর কাপড় শুকানোর দড়ির মতো রঙিন রিবন আড়াআড়ি করে দেয়ালে স্কচটেপ দিয়ে লাগিয়ে দিন। এবার কয়েকটি রঙের কাপড়ের ক্লিপ দিয়ে ছবিগুলো ঝুলিয়ে দিন রিবনের সঙ্গে।

*নিজের পড়ার টেবিলটিকেও পরিপাটি করে গুছিয়ে রাখুন।

*টেবিল যদি দেয়ালঘেঁষে রাখা থাকে তাহলে, দাঁড়িয়ে দেখা যায় এমন উচ্চতায় দেয়ালে আয়না ঝুলিয়ে দিন। ছোট ছোট কয়েকটি আয়না লাগালেও ভালো দেখাবে। অল্প দামে বিভিন্ন জায়গায় পেয়ে যাবেন ছোট ছোট আয়না।

easter-spring-vase

*টেবিলে ছোট ছোট মানিপ্লান্টসের টব রাখতে পারেন। এগুলোয় খুব একটা যত্নআত্মির প্রয়োজন নেই।

*রোজকার ব্যবহার্য ব্যাগগুলো দেয়ালের একপাশে ওপর নিচ করে ঝুলিয়ে রাখতে পারেন। পাশে ঝুলিয়ে দিতে পারেন প্রিয় গিটারটিও।

 

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here