হৃৎপিন্ড সুস্থ রাখতে তরুণ বয়স থেকেই সতর্ক থাকুন

হৃৎপিন্ড সুস্থ রাখতে তরুণ বয়স থেকেই সতর্ক থাকুন
হৃদ্যন্ত্র সুস্থ রাখতে রাতে সাত থেকে আট ঘণ্টার নিশ্ছিদ্র ঘুম জরুরি। রাত জাগার অভ্যাস ছাড়ুন। মানসিক চাপ, দুশ্চিন্তা পরিহার করুন।

আর্টস্টাইল কিউরেটর   

আজকাল কম বয়সেই অনেকে হৃদ্রোগে আক্রান্ত হচ্ছেন। আমাদের জীবনযাপন পদ্ধতির নানা ভুল ও অসতর্কতা এ জন্য দায়ী। হৃৎপিণ্ডকে বেশি বয়স পর্যন্ত সুস্থ রাখতে চাইলে একেবারে তরুণ বয়স থেকেই কিছু অভ্যাস বদলাতে হবে। জেনে নিন, এ বিষয়ে কয়েকটি তথ্য:

* বয়স বাড়লে শরীরের ওজনও বাড়তে থাকে। শৈশব, কৈশোর পেরিয়ে তারুণ্যের একটা পর্যায়ে এটা শুরু হয়। আর চাকরি বা কাজের জায়গায় যদি প্রতিদিন নিয়মিত দীর্ঘক্ষণ বসে থাকতে হয়, তবে মধ্য বয়সে পৌঁছার আগেই মানুষ মুটিয়ে যায়। তাই শুরু থেকেই সতর্ক থাকুন। উচ্চতা অনুযায়ী ওজন যা হওয়া উচিত, তাতেই নিজেকে সীমাবদ্ধ রাখুন। ভুঁড়িটাকেও বাড়তে দেবেন না।

* ধূমপানের অভ্যাসটা তরুণ বয়সেই গড়ে ওঠে। কিন্তু আধুনিক তরুণ হিসেবে জানা উচিত, ধূমপান মানেই বিষপান। তাই ধূমপানকে শুরু থেকেই না বলতে শিখুন।

* স্কুল ছাড়ার পর প্রায় সবাই খেলাধুলাও ছেড়ে দেন। অফিসে ঘণ্টার পর ঘণ্টা বসে কাজ করার পর বাড়ি ফিরেই আবার টিভি বা কম্পিউটারের সামনে বসবেন কেন? ওজন কমাতে ও হৃদ্যন্ত্র ভালো রাখতে প্রতিদিন অন্তত আধা ঘণ্টা কায়িক পরিশ্রম করতেই হবে। সেটা হাঁটাহাঁটি হতে পারে, অথবা যে কোনো ব্যায়াম।

* উচ্চ মাত্রায় ক্যালরি ও চর্বিযুক্ত খাবার বাদ দিন। গরু-খাসির মাংস, কলিজা, মগজ, চিংড়ির মাথা, ঘি-মাখন দিয়ে তৈরি খাবার, ডুবো তেলে ভাজা খাবার, কেক-পেস্ট্রি ইত্যাদি খাবার যতটা সম্ভব এড়িয়ে যাওয়াই ভালো।

* খাবারে অতিরিক্ত লবণ উচ্চ রক্তচাপ ও হৃদ্রোগ—দুটোরই ঝুঁকি বাড়ায়। তাই বাড়তি লবণ বাদ দিন, রান্নায়ও লবণ সীমিত রাখুন। নিয়মিত রক্তচাপ মাপুন। বছরে অন্তত একবার রক্তে শর্করা ও চর্বির মাত্রা দেখে নিন।

* হৃদ্যন্ত্র সুস্থ রাখতে রাতে সাত থেকে আট ঘণ্টার নিশ্ছিদ্র ঘুম জরুরি। রাত জাগার অভ্যাস ছাড়ুন। মানসিক চাপ, দুশ্চিন্তা পরিহার করুন। বন্ধুবান্ধব, পরিবার-পরিজনের সঙ্গ, কোনো ভালো শখের চর্চা ও নিয়মিত ব্যায়ামের মাধ্যমে মানসিক চাপ কমাতে পারেন। প্রয়োজনে চিকিৎসকের সাহায্য নিন।

1 COMMENT

  1. ধূমপানের অভ্যাসটা ছাড়তে পাড়ছি না। এছাড়া বাকি গুলো মেনে চলি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here