১৪তম আন্তর্জাতিক স্বল্পদৈর্ঘ্য ও মুক্ত চলচ্চিত্র উৎসব শুরু ৩ ডিসেম্বর

১৪তম আন্তর্জাতিক স্বল্পদৈর্ঘ্য ও মুক্ত চলচ্চিত্র উৎসব শুরু

আগামী ৩ ডিসেম্বর থেকে শুরু হচ্ছে বাংলাদেশ শর্ট ফিল্ম ফোরাম আয়োজিত ১৪ তম আন্তর্জাতিক স্বল্পদৈর্ঘ্য ও মুক্ত চলচ্চিত্র উৎসব ২০১৬। ৮দিন ব্যাপী এ উৎসবে ১০৯ টি দেশ থেকে প্রায় ২৫০০ চলচ্চিত্রের মধ্যে বাছাইকৃত ৫৫০টির মত চলচ্চিত্র প্রদর্শিত হবে। উৎসবে বিশ্বের বিভিন্ন দেশের বিখ্যাত চলচ্চিত্র ব্যক্তিত্বরা উপস্থিত থাকবেন। ২০১৬ সালের ১৪ তম আসরে উৎসব কমিটির চেয়ারম্যান হিসেবে আছেন নাট্যব্যক্তিত্ব ও চলচ্চিত্রকার নাসির উদ্দিন ইউসুফ বাচ্চু এবং উৎসব পরিচালক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন সৈয়দ ইমরান হোসেন কিরমানী।

উল্লেখ্য, ১৯৮৬ সালের আগস্ট মাসে বাংলাদেশ শর্ট ফিল্ম ফোরাম প্রতিষ্ঠা হয়। এটি বাংলাদেশের একমাত্র স্বাধীন ধারার চলচ্চিত্রকারদের সংগঠন। এ বছর বাংলাদেশ শর্ট ফিল্ম ফোরাম ৩০ বছরে পদার্পণ করেছে। ১৯৮৮ সালে বাংলাদেশ শর্ট ফিল্ম ফোরাম উপমহাদেশে প্রথম বারের মত আন্তর্জাতিক স্বল্প দৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র উৎসবের আয়োজন করে। বিগত ২৮ বছর যাবৎ এই চলচ্চিত্র উৎসবটি অনুষ্ঠিত হয়ে আসছে।

আয়োজনের ভেন্যু হিসেবে থাকছে জাতীয় গ্রন্থাগার এর শওকত ওসমান মিলনায়তন, জাতীয় জাদুঘরের মূল মিলনায়তন, জাতীয় জাদুঘর এর সুফিয়া কামাল মিলনায়তন, বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় মিলনায়তন ও বিশ্ব সাহিত্য কেন্দ্র। আগামী ৩ ডিসেম্বর শনিবার জাতীয় গ্রন্থাগারের শওকত ওসমান মিলনায়তনে উদ্বোধনী অনুষ্ঠান আয়োজন করা হচ্ছে। প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন অর্থমন্ত্রী জনাব আবুল মাল আব্দুল মুহিত ও বিশেষ অতিথি তথ্য মন্ত্রী জনাব হাসানুল হক ইনু।

প্রতিদিন ৪টি প্রদর্শনী উপভোগ করা যাবে। সকাল ১১টা, দুপুর ৩টা, বিকাল ৫টা, সন্ধ্যা ৭টা দেখা যাবে। উৎসবে প্রদর্শিত গুরুত্বপূর্ণ চলচ্চিত্রের মধ্যে অস্কার ২০১৬ থেকে ২টি স্বল্প দৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র, কান ২০১৬ থেকে ৩০ টি ২০১৫ থেকে ১৭ টি, সানড্যান্স ২০১৭ থেকে ১০ টি, টিফ ২০১৫ থেকে ৩ টি, ওবারহাওজেন ২০১৬ থেকে ৩টি,২০১৫ থেকে ৫টি, বার্লিন ২০১৬ থেকে ৫টি, ২০১৫ থেকে ১টি, বুসান ২০১৬ থেকে ১টি, ২০১৫ থেকে ১টিসহ বিভিন্ন আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন চলচ্চিত্র উৎসব থেকে সাম্প্রতিক সময়ের স্বল্প দৈর্ঘ্য ও মুক্ত চলচ্চিত্র প্রদর্শিত হবে। এছাড়াও থাকছে বিশেষ প্রদর্শনী। ১০ ডিসেম্বর জাতীয় জাদুঘরের মূল মিলনায়তনে সমাপনী অনুষ্ঠান আয়োজন করা হবে। সমাপনীতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রী জনাব আসাদুজ্জামান নূর।

 

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here