রেগে গেলেন তো হারলেন!

রাগ হলো মানুষের আবেগের বহিঃপ্রকাশের একটি ধরণ। কথায় আছে, ‘রেগে গেলেন তো হেরে গেলেন।’ কিন্তু ব্যাপারটা তো আসলে কেবল হার–জিতের নয়। রাগের মাথায় আমরা অনেক কথাই বলি, অনেক কিছুই করি। মুশকিলটা আসলে এখানেই। কেননা রেগে গেলে মানুষ বেশিরভাগ সময়ই অর্থহীন এবং বিভিন্ন ঝুঁকিপূর্ণ সিদ্ধান্ত নিয়ে থাকে। শুধু তাই নয়, রাগ আপনার মানসিক এবং শারীরিক স্বাস্থ্যের উপরও মারাত্নক প্রভাব ফেলে। এর কারণে কখনও কখনও ব্যক্তিগত, সামাজিক এবং পেশাগত সম্পর্কও নষ্ট হয়ে যেতে পারে। কাজেই রাগের সময় শান্ত থাকাটাই বুদ্ধিমানের কাজ।

মনোবিজ্ঞানীদের মতে, রাগ হলো মনের একটা দুর্বলতামাত্র। কাজেই রাগের মুহূর্তে ধৈর্য ধরা খুবই জরুরি। কাজেই এ সময় এমন কাজ কখনই করবেন না যাতে ভবিষ্যতে আপনাকে বিড়ম্বনায় পড়তে হয়।

জেনে নিন রাগের সময় করবেন না যেসব কাজ-

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পোস্ট করবেন না
সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে রাগের সময় কখনই কোনো কিছু পোস্ট করা উচিত নয়। এতে পরিচিত মহলে আপনার একটি নেতিবাচক ইমেজ তৈরি হওয়ার ঝুঁকি থাকে। কখনও কখনও আপনার মন্তব্য বন্ধুদেরও হতাশ করতে পারে। কাজেই রাগের সময় কোন কিছু পোস্ট থেকে দূরে থাকুন।

সিদ্ধান্ত নিবেন না
মাথা ঠাণ্ডা থাকলেই কেবল সঠিক সিদ্ধান্ত নেওয়া সম্ভব। কাজেই জীবনের গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্তগুলো ঠাণ্ডা মাথায় পরিস্থিতির ওপর নজর রেখে তারপর নিন। অন্যথায় রাগের মাথায় সিদ্ধান্ত নিলে পরে পস্তাতে হতে পারে। তবে গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নেওয়ার সময় আবেগ নিয়ন্ত্রণে রাখাটাও খুবই জরুরি।

অন্যের ওপর রাগ ঝাড়বেন না
রাগলে সাধারণত এর ফলটা ভালো হয় না। কাজেই রেগে গেলে তার প্রভাব চারপাশের মানুষের ওপরও পড়তে পারে। ফলে সম্পর্ক নষ্ট হওয়ার একটা সম্ভাবনা তৈরি হয়। কাজেই রাগের সময় নিজেকে নিয়ন্ত্রণে রাখার চেষ্টা করুন। এ সময় গভীরভাবে শ্বাস নিলে মানসিক চাপ কিছুটা কমে যায়।

গাড়ি চালাবেন না
রাগের সময় গাড়ি চালালে দুর্ঘটনা ঘটার সম্ভাবনা থাকে।  কাজেই রাগের সময় গাড়ি চালানো থেকে নিজেকে বিরত রাখুন। গবেষণায় দেখা গেছে, রাগের সময় মানুষ অমনোযোগী এবং আক্রমণাত্মক থাকে। এর ফলে রাস্তায় দুর্ঘটনা ঘটানোর ঝুঁকি থেকেই যায়।

অবিশ্বস্তদের সঙ্গে শেয়ার করবেন না
আপনার সমস্যা এবং ভেতরের সংঘাত কখনই অবিশ্বস্তদের সঙ্গে শেয়ার করবেন না। এতে আপনার ক্ষতি হতে পারে। বরং বিশ্বস্তদের সঙ্গে কথা বলুন। এতে করে রাগ থেকে পরিত্রাণ পাওয়ার কিছু মূল্যবান উপদেশ পেতে পারেন।

বদ অভ্যাস ত্যাগ করুন
ইচ্ছা শক্তিকে নষ্ট করতে সাহায্য করে বিভিন্ন ধরনের বদঅভ্যাস। বিশেষ করে ধূমপান এবং অ্যলকোহল অনেক সময় আপনার মনকে বিক্ষিপ্ত করতে পারে। কাজেই এ বদভ্যাসগুলো ত্যাগ করুন। এক্ষেত্রে রাগ কমাতে আপনি শারীরিক ব্যায়াম করতে পারেন। তাতে কিছুটা হলেও মাথা ঠাণ্ডা থাকবে।

বেশি কথা বলবেন না
রাগের সময় মানুষ স্বভাববহির্ভুত আচরণ করতে পারে। তাই এ সময় অন্যের সঙ্গে যত কম কথা বলা যায় ততই ভালো।

রাগ করলে মানুষ অনেক বেশি আক্রমণাত্নক হয়ে পড়ে। এতে তার সৎ ইচ্ছা প্রবৃত্তিগুলো সহজেই নষ্ট হয়ে যায়। পাশাপাশি বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক নষ্ট করতেও ভূমিকা রাখে রাগ।  কাজেই ভবিষ্যতে নিজের ভালো চাইলে রাগের সময় শান্ত থাকাটাই বুদ্ধিমানের কাজ।

 

 

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here